Categories
রাজ্য

স্ট্যান্ড রোডের অগ্নিকাণ্ডের ফলে ক্ষয়ক্ষতি যা হয়েছে তা সামলে উঠতে বেশ সময় লাগবে,বলছে উচ্চপদস্থ কর্তারা।

১০/৩/২০২১,ওয়েবডেস্কঃ

স্ট্যান্ড রোডের অগ্নিকাণ্ড ইতিমধ্যে দমকল কর্মীদের আয়ত্তের মধ্যে এলোও তার ক্ষতির পরিমাণ অপরিসীম। যা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা সামলে উঠতে বেশ কিছুটা সময় লাগবে বলেই জানা গেছে। অন্যদিকে যে সমস্ত দমকল কর্মী ও পুলিশকর্মীরা নিহত হয়েছেন তাদের পরিবারের পাশে থাকবে কেন্দ্রীয় সরকার ও রাজ্য সরকার।এমনটাই তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যে স্ট্যান্ড রোডের ওই বিল্ডিংয়ে কুলিং প্রসেস চলছে। দেখা হচ্ছে কোথাও আর কোন ফায়ার পকেট রয়েছে কিনা। দমকলকর্মীরা এখনো পর্যন্ত তাদের তল্লাশি চালিয়ে যাচ্ছে। দেখছেন কোথাও কোনো রকমের আগুনের বিন্দুমাত্র চিহ্ন রয়েছে কিনা ।এখনো পর্যন্ত সেখানে উপস্থিত রয়েছেন দলের বিভিন্ন উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। প্রসঙ্গত রাত দুটো নাগাদ আগুনের লেলিহান শিখা দেখা গিয়েছিল স্ট্যান্ডে রোডের ওই বহুতল বিল্ডিং-এ।

স্ট্র্যান্ড রোড অগ্নিকাণ্ডে টুইটারে শোক প্রকাশ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর । মৃতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর দফতর থেকে মৃতদের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা ও আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে সাহায্যের ঘোষণা করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই ন’টি মৃতদেহের মধ্যে ছ’টি দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। বাকি দু’জনের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। তবে এখনও শনাক্ত করা যায়নি একটি দেহ।


সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা নাগাদ আগুন লাগে বড়বাজারের ১৪ নম্বর স্ট্র্যান্ড রোডের একটি বহুতলে। ১৩ তলায় রেলের অফিস ছিল। সেখানেই আগুন লাগে। এরপরই আগুনের লেলিহান শিখা ছড়াতে শুরু করে। আগুন নেভাতে গিয়ে ঝলসে মৃত্য়ু হয় ৯ জনের। এরমধ্যে ৪ জন দমকল কর্মী, একজন এএসআই, দু’জন রেল কর্মী, একজন আরপিএফ রয়েছে। একজনের পরিচয় এখনও জানা যায়নি।
হেয়ারস্ট্রিট থানার এএসআই-সহ ৭জনের মৃত্যু হল। মৃতদের মধ্যে রয়েছেন ৪ দমকল কর্মী, একজন পুলিস আধিকারিক ও দুই আরপিএফ জওয়ান। ৬টা ১০ মিনিটে আগুন লেগেছিল। ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। হেয়ারস্ট্রিট থানার এএসআই, ৪ দমকল কর্মী মারা গিয়েছেন।’  আরও দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁরা রেলকর্মী বলে জানা গিয়েছে। 
সন্ধে ৬.১০ মিনিটে আগুন লাগে স্ট্র্যান্ড রোডে পূর্ব রেলের দফতরে। ১৩ তলায় আগুন লাগায় ল্যাডার আনতে হয় দমকলকে। রাতের দিকে খবর আসে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের। তা নিশ্চিত করেন দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু । সূত্রের খবর, দমকল কর্মীরা লিফটে করে ওপরে উঠছিলেন। যে মুহূর্তে লিফট খোলেন তাঁরা, আগুনের লেলিহান শিখায় ঝলসে যান তাঁরা। তা এতটাই ভয়াবহ, দেহ সনাক্ত করতেও সমস্যা হচ্ছিল। তাঁরা অনুমান করতে পারেননি, অন্যদিকের আগুন এপাশে চলে এসেছে। 

26

Leave a Reply