৫/৩/২০২১,

ওয়েবডেস্কঃ কথা ছিল একুশের বিধানসভা ভোটে রাজ্যের শাসকদলের তরফে এগিয়ে দেওয়া হবে নতুন, উদ্যমী দলীয় নেতা, কর্মীদের। শুক্রবার দুপুরে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পর দেখা গেল, ৫০ শতাংশের কাছাকাছি নবাগত প্রতিনিধি। তৃণমূলের হয়ে নির্বাচনী লড়াইয়ে নামছেন সক্রিয়, তরুণ নেতানেত্রীরা। গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের। এছাড়া তালিকায় রয়েছে একাধিক প্রাক্তন আমলার নাম।

মহিলা প্রার্থী ৫০ জন। সংখ্যালঘু প্রার্থী ৪২ জন। তফসিলি জাতি ও উপজাতির প্রার্থী ৯৬ জন। নতুন প্রার্থীদের তালিকায় রয়েছেন : 

১)জোড়াসাঁকো থেকে লড়ছেন নতুন প্রার্থী বিবেক গুপ্তা।

২)ডেবরা থেকে তৃণমূল প্রার্থী প্রাক্তন পুলিশ কর্তা (IPS) হুমায়ুন কবীর।

৩)শিলিগুড়িতে তৃণমূলের নতুন প্রার্থী ওমপ্রকাশ মিশ্র।

৪)কুমারগ্রাম থেকে ঘাসফুল শিবিরের নতুন প্রার্থী লিওস কুজুর।

৫)কালচিনি থেকে লড়ছেন নবাগত পাসাং লামা। 

৬)বাদুড়িয়া থেকে তৃণমূলের নতুন প্রার্থী কাজি আবদুল রহিম।

৭) খড়দহ থেকে তৃণমূলের হয়ে লড়ছেন নতুন প্রার্থী কাজল সিনহা।

৮)বলাগড়ে তৃণমূলের নতুন প্রার্থী মনোরঞ্জন ব্যাপারি।

৯) বেহালা পূর্বের নতুন প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায়।

১০)আরামবাগে নতুন প্রার্থী সুজাতা মণ্ডল খাঁ।

১১)দুর্গাপুর পশ্চিমে তৃণমূলের হয়ে লড়বেন বিশ্বনাথ পারিয়াল।

বিভিন্ন কারণে বাদ পড়েছেন বর্তমান জনপ্রতিনিধিরা। খড়দহ থেকে এবার লড়ছেন না রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র, সাতগাছিয়া থেকে বাদ পড়েছেন প্রাক্তন ডেপুটি স্পিকার সোনালি গুহ, ভাঙড় থেকে লড়াইয়ে নেই প্রাক্তন মন্ত্রী রেজ্জাক মোল্লা,সিঙ্গুর থেকে এবার লড়ছেন না ‘মাস্টারমশাই’ রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। রাজারহাট-গোপালপুর থেকে এবার লড়াইয়ে নেই পূর্ণেন্দু বসু, বসিরহাট দক্ষিণ কেন্দ্র থেকে লড়াইয়ে বাদ পড়ছেন দীপেন্দু বিশ্বাস। তবে পরবর্তীতে প্রশাসনিক স্তরে অন্যান্য ভূমিকায় দেখা যাবে এঁদের। 

এ বছর ভোটের পর তৈরি হবে বিধান পরিষদ। যে সব জনপ্রতিনিধি নির্বাচনী লড়াইয়ে বাদ পড়ছেন, তাঁদের নিয়ে তৈরি হবে এই বিধান পরিষদ। প্রার্থী তালিকা ঘোষণার সময়ে এমনই জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ প্রসঙ্গে তিনি মণীশ গুপ্ত, অমিত মিত্র, পূর্ণেন্দু বসুর মতো নেতাদের নাম করলেন তিনি। অন্যদিকে, দলের  রাজ্যসভার সাংসদ মানস ভুঁইঞাকে সবং থেকে প্রার্থী করা হয়েছে। 

111