২৭/২/২০২১,ওয়েবডেস্কঃ জানুয়ারিতে শুরু হয়ে গিয়েছে টিকাকরণ দেশজুড়ে কমতে শুরু করেছে দৈনিক সংক্রমণের হার। তার মধ্যেই ফের নতুন করে করোনা আতঙ্কে কাঁপতে শুরু করেছে মহারাষ্ট্র । মুম্বই-সহ রাজ্যের বেশ কয়েকটি শহর এবং অন্যান্য এলাকায় যেভাবে সংক্রমণ বাড়ছে তাতে উদ্বিগ্ন উদ্ধব ঠাকরের সরকার। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ইতিমধ্যে একাধিক জায়গায় আংশিক এবং কিছু জায়গায় সম্পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। কোথাও আবার জারি নাইট কার্ফু। এই পরিস্থিতিতে ২৭ এবং ২৮ ফেব্রুয়ারি জনতা কার্ফু জারি হল মহারাষ্ট্রের লাতুর জেলায়। এক ভিডিওবার্তায় জনতা কার্ফুর কথা ঘোষণা করেন লাতুরের জেলাশাসক।

এর আগে গত বছরের শুরুতেই করোনার কারণে লকডাউন জারির আগে দেশজু়ড়ে জনতা কার্ফুর ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এরপর লকডাউন, আনলক পর্বও কাটিয়ে ফেলেছে গোটা দেশ। ভ্যাকসিন বেরনোর পর সংক্রমণ থেকে রেহাই পাওয়ার সময়ই ফের মহারাষ্ট্রে বেড়ে চলেছে সংক্রমণ। এই পরিস্থিতিতেই সংক্রমণ রুখতে শনিবার এবং রবিবার জনতা কার্ফুর ঘোষণা করেন লাতুরের জেলাশাসক পৃথ্বীরাজ বিপি।

এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, “২৭ এবং ২৮ ফেব্রুয়ারি লাতুরে জনতা কার্ফু জারি করা হয়েছে। এই দু’দিন কেবল জরুরি পরিষেবাই চালু থাকবে।” পাশাপাশি তিনি আরও জানান পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে সংক্রমণ রুখতে এই দু’দিন সাধারণ মানুষকে খুব প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বেরতে নিষেধ করেন। এখানেই শেষ নয়, মাস্ক না পরে বেরলে জরিমানাও করা হবে বলে জানান তিনি। এদিকে, এই প্রসঙ্গে লাতুরের মেয়র জানিয়েছেন, এই জনতা কার্ফুতে কড়া কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হবে না। কিন্তু সাধারণ মানুষকে আরও সচেতন হতে হবে। ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে সবাইকে এই জনতা কার্ফু ঠিকমতো পালন করতে হবে।

73