ওয়েবডেস্কঃ নির্বাচনের দিন ঘোষণা এখনও হয়নি। কিন্তু ভোটের উত্তাপ এখনই বঙ্গে বেশ টের পাওয়া যাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে ভোটের ঢাকে কাঠি দিয়ে নয়া স্লোগান লঞ্চ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস- ‘বাংলা নিজের মেয়েকে চায়।’ সোমবার হুগলির সভা থেকে সেই স্লোগানকে কটাক্ষ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। একইসঙ্গে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ‘কাটমানি কালচার’ নিয়ে সরব হয়েছেন তিনি।

এদিন হুগলির ডানলপ ময়দানে রাজনৈতিক সভা ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির । সেখান থেকে তৃণমূলের নতুন স্লোগানকে তীব্র কটাক্ষ করলেন তিনি। রাজ্যের শাসকদলের সমালোচনা করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী জানান, দেশের বিভিন্ন রাজ্যে পাইপ লাইনের মাধ্যমে জল পৌঁছে দিতে ‘জল জীবন’ প্রকল্প এনেছে কেন্দ্রীয় সরকার। বাংলার গ্রামের দেড়-দু’কোটি ঘরে এই প্রকল্প পৌঁছে দেওয়ার কথা। কিন্তু মাত্র ৯ লক্ষ ঘরে এই জল পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ প্রধানমন্ত্রীর।

নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন, কেন্দ্র এই প্রকল্পের দরুণ রাজ্যকে ১৭০০ কোটি টাকা দিয়েছে। কিন্তু রাজ্য মোটে ৬০৯ কোটি টাকা খরচ করেছে। বাকি টাকা সরকার আত্মসাৎ করেছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। এর পরই প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন, “বাংলার মেয়েরা কেন বিশুদ্ধ জল পাওয়া থেকে বঞ্চিত হবে? বাংলার মেয়েদের কি বিশুদ্ধ জল পাওয়ার অধিকার নেই?” রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়েও তীব্র কটাক্ষ করেন নরেন্দ্র মোদি। তাঁর কথায়, “বাংলার মেয়েরা কেন নিরাপত্তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে?”

রাজ্য সরকার কাটমানি কালচার চলছে বলেও অভিযোগ করলেন নরেন্দ্র মোদি। তাঁর কথায়, “এ রাজ্যে যে কোনও প্রকল্প, শিল্প শুরু করতে গেলে কাটমানি দিতে হয়। এরা দু’তরফ থেকেই কাটমানি নেই।” এর পরই প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস, “বিজেপি এমন সোনার বাংলা গড়বে, যেখানে কোনও কাটমানি দিতে হবে না। কাউকে তুষ্ট করতে হবে না।” হুগলির পূর্ব গরিমা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিলেন তিনি।

19