Categories
আশেপাশের খবর

অসুস্থ বিশ্ববিদ্যালয় কর্মী ভোটের ডিউটি আসায় মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী রায়গঞ্জে!

অসুস্থ শরীরে ভোটের ডিউটি করার অ্যাঙ্জাইটি থেকে অন্তত দুঃখ জনক পরিনামের শিকার হলেন এক ভোট কর্মী! রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই শিক্ষাকর্মীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য শহরে৷ অভিযোগ উচ্চ মাত্রার সুগার এবং প্রেসারের দীর্ঘদিনের রুগী এই শিক্ষাকর্মী ভোটের ডিউটি আসায় মানসিক অবসাদে ভুগতে শুরু করেছিলেন। সেই অবসাদ থেকেই তিনি এদিন আত্মহত্যা করেছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সেরিকালচার বিভাগের ল্যাবরেটরি থেকে শিক্ষাকর্মীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ৷ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে,আত্মঘাতী ওই শিক্ষাকর্মীর নাম সুধীর সরকার। বাড়ি রায়গঞ্জের উকিল পাড়া এলাকায়। এদিন সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁর ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পান। জানা গেছে, সেরিকালচার বিভাগের পরীক্ষাগারের সিলিংয়ে পাখার হুকে গলায় দড়ি লাগিয়ে ঝুলে ছিলেন সুধীর সরকার। শিক্ষাকর্মীর আত্মঘাতী হওয়ার খবরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে কলেজপাড়া এলাকায়। 

মৃতের ছেলে শুভঙ্কর সরকার জানান, বৃহস্পতিবার  ভোটের ডিউটি আসার পর থেকেই নিজের শারীরিক অবস্থা নিয়ে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। বহু দিন ধরেই সুগার ও প্রেসারের রোগী ছিলেন। সেই কারণেও নানা রকম অবসাদের কথা বাড়িতে বলতেন। এদিন নির্ধারিত সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে এসেছিলেন কিন্তু সন্ধ্যা হয়ে যাওয়ার পরেও বাড়ি না ফেরায় ছেলে শুভঙ্কর বিশ্ববিদ্যালয়ে খোঁজ করতে আসেন। গার্ডের কাছে খোঁজ করতেই ল্যাবরেটরিতে ঝুলন্ত দেহ মেলে। কি কারণে আত্মঘাতী হলেন তা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে

222

Leave a Reply