১৭/২/২০২১,ওয়েবডেস্কঃ বাম ছাত্র-যুবদের নবান্ন অভিযানে পুলিশের ওপর লাঠিচার্জের যে অভিযোগ ওঠে। তার জেরে এক যুব নেতার মৃত্যু হয়। এই মৃত্যু মেনে নিতে নারাজ গনতান্ত্রিক যুব ফেডারেশনের কর্মীরা সহ গোটা রাজ্যবাসী।।

বিভিন্ন মহলে এক বড় প্রশ্ন উঠছে রাজনৈতিক মহলে কি এখন মৃত্যুই সবচেয়ে প্রথম?

গত ১১ ই ফেব্রুয়ারী গনতান্ত্রিক যুব ফেডারেশনের নবান্ন অভিযানে রাজ্য পুলিশের বর্বরচিত লাঠি চার্চের অভিযোগে আহত D.Y.F.I এর বাঁকুড়া জেলার কোতুলপুরের যুব কমরেড মইদুল ইসলাম মিদ্দা মৃত্যু বরণ করেন।।

এই মর্মান্তিক দুঘটনার জেরে আজ গনতান্ত্রিক যুব ফেডারেশনের করনদিঘী কমিটির দ্বারা করনদিঘী থানায় স্মারকলিপি প্রদান করে।।

আজকের এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন রুহুল আমিন, আশীষ ঘোষ সহ আরো অনেকে।

তাদের দাবি অভিযুক্ত পুলিশ কর্মী যাতে সঠিক শাস্তি পায় ও পাশাপাশি পুলিশ মন্ত্রীর পদত্যাগের দাবী জানিয়েছেন তারা।।

22