১১/২/২০২১,ওয়েবডেস্কঃ

পূর্ব ঘোষনা অনুযায়ী বাম ছাত্র যুবদের নবান্ন অভিযান শুরুর আগে থেকেই তা নিয়ে শুরু হয়েছিলো হাই ভোল্টেজ উদ্দিপনা। দিনের শুরুতেই রাজ্যের বিভিন্ন স্থান থেকে যুব ছাত্ররা শহর কলকাতায় উপস্থিত হয়। চাকরির হিসেব চাইতে, হকের দাবি বুঝে নিতে শান্তিপূর্ন মিছিল শুরু হয় শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নবান্নের লক্ষে। ডোরিনা ক্রসিংএ পৌঁছালে মিছিল আটকানোর চেষ্টা করে পুলিশ। শান্তিপূর্ণ মিছিলে আচমকাই লাঠিচার্জ শুরু করে পুলিশ। চালানো হয় জলকামান।ফাঁটানো হয় টিয়ার গ্যাস।মাথা ফাঁটে বেশ কয়েক জনের। আহত হয় ৫০ এর বেশি বাম সমর্থকরা। মহিলাদের ওপর অমানবিক ভাবে লাঠিচার্জ করা হয়। পাল্টা প্রতিবাদের পথে হাঁটতে শুরু করে মিছিলে অংশ গ্রহনকারীরা।এর ফলেই শুরু হয় ধুন্ধুমার পরিস্থিতি। আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়।পরিস্থিতি সামাল দিতে আসরে নামেন পুলিশ আধিকারিক জাভেদ শামিম। অন্যদিকে জানা গেছে পুলিশের তরফে আহত হয়েছে কয়েক জন। যদিও এই অভিযান শুরুর আগেই গতকাল সূর্য কান্ত মিশ্র জানিয়ে ছিলেন,নবান্ন অভিযানে ছাত্র যুবদের উপর আক্রমণ হলে গোটা রাজ্য জুড়ে আন্দলোনে নামবে বামফ্রন্ট। অন্যদিকে, কলকাতায় ছাত্র যুবদের ওপর অমানবিক পুলিশের এই অত্যাচারের প্রতিবাদে আজ রায়গঞ্জ শহরে বিক্ষোভ মিছিল করবে এমনটাই জানিয়েছেন সিপিএমের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য উত্তম পাল।

102