১০/২/২০২১,ওয়েবডেস্কঃ

আজ, বুধবার রায়গঞ্জ স্টেডিয়ামে কর্মীসভা ও রাজনৈতিক সভা করলেন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মূলত বিধানসভা ভোটের আগে উত্তর দিনাজপুরের তৃণমূল জেলা কমিটি সঙ্গে রাজনৈতিক আলাপ আলোচনা করবার জন্য স্টেডিয়ামে বিপুল সাউন্ড সিস্টেম এবং মাইক সহযোগে বিরাট কর্মীসভার আয়োজন করা হয়েছিল। চারিদিকে বড় বড় মাইক লাগিয়ে ছেয়ে ফেলা হয়েছিল পুরো এলাকা।ঠিক সেটা নিয়েই বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলে বিতর্ক দানা বাঁধে। স্টেডিয়ামের ঢিল ছোড়া দূরত্বে রয়েছে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। ভর্তি রয়েছে সেখানে মুমূর্ষ রোগী।বিপুল পরিমানের মাইক নিয়ে যে শব্দ তা মোটেই মুমূর্ষু রোগীদের পক্ষে ঠিক নয়, ঠিক সেটা ভেবেই বিতর্ক তৈরি হয়েছিল বিভিন্ন মহলে।

বিরোধী দের মতে,যেই দল নিজস্ব কোন সংবিধান কোন নিয়ম নীতি মানেনা, তাদের থেকে এরকম কাণ্ডজ্ঞানহীন একটি পরিকল্পনা আশা করাই যায়। অপরদিকে এর জবাবে রায়গঞ্জের পৌরপতি তথা তৃণমূল নেতা সন্দীপ বিশ্বাস বলেন, এর আগেও রায়গঞ্জে স্টেডিয়ামে অনেক বড় বড় তাবড় তাবড় নেতা ও নেত্রী সভা করে গেছেন কিন্তু সে সময় কোন রকম বিতর্ক উত্থাপন করা হয়নি ।এমনকি কদিন আগে মার্চেন্ট ক্লাব ময়দানেও অমিত শাহ সভা করে গেছেন সেটাও মেডিকেল কলেজের ২০০ মিটারের মধ্যেই অবস্থিত, কিন্তু তখন কোনো বিতর্ক বা সমালোচনা করতে দেখা যায়নি। তার মতে, শিক্ষিত মানুষের জেনে-বুঝে সমালোচনা করা উচিত।

98