ওয়েব ডেস্ক ফেব্রুয়ারি ৩,২০২১: পেট্রোল ও ডিজেলের মত ভর্তুকিহীন হতে চলেছে নিম্নবিত্তের জ্বালানি কেরোসিন। ধাপে ধাপে দাম বাড়িয়ে পেট্রোল-ডিজেলের উপর থেকেও যেভাবে কয়েক বছর আগে পুরোপুরি ভর্তুকি তুলে নেওয়া হয়েছে, আন্তর্জাতিক বাজারের খোলা দামেই এই জ্বালানি কিনতে হয় দেশের মানুষকে, এবার সেই তালিকায় জুড়ছে কেরোসিনের নামও। বর্তমানে গণবণ্টন ব‌্যবস্থায় দেশের সাধারণ মানুষকে কেরোসিনের জোগান দেওয়া হয়। রান্নার জ্বালানি এবং আলোর জন‌্য প্রান্তিক অঞ্চলেই যার প্রধানত ব‌্যবহার। এবার দরিদ্রের সেই জ্বালানির উপর থেকেও পুরোপুরি ভর্তুকি প্রত‌্যাহার করা হল। অল্প হারে দাম বৃদ্ধি করে ১ এপ্রিল তা পুরোপুরি প্রত‌্যাহার করা হবে। সোমবার বাজেট প্রস্তাব পেশ করার সময় এপ্রিল থেকে শুরু হতে চলা আগামী অর্থবর্ষে কেরোসিনে ভরতুকির জন‌্য কোনও অর্থ বরাদ্দ রাখেননি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

মার্চে শেষ হতে চলা চলতি অর্থবর্ষে কেরোসিন বাবদ সরকারের তরফে ২৬৭৭.৩২ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছিল। আগের বছর এই খাতে বরাদ্দ অর্থের পরিমাণ ছিল ৪০৫৮ কোটি টাকা। অর্থাৎ ইতিমধ্যেই কেরোসিনের উপর ভরতুকির পরিমাণ বেশ কিছুটা কমেছে প্রতি অর্থবর্ষে। এবার তা শূন‌্য হতে চলেছে।

বর্তমানে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে লাইসেন্সপ্রাপ্ত কেরোসিন ডিলাররা কমবেশি ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা লিটার দরে কেরোসিন বিক্রি করে থাকেন। সংশ্লিষ্ট বিভাগ সূত্রে খবর, ২০১৬ সালেই রাজ্যেরর নিয়ন্ত্রণাধীন খুচরো জ্বালানি বিক্রেতাদের প্রতি পনেরো দিনে ২৫ পয়সা হারে কেরোসিনের দাম বৃদ্ধি করে ভরতুকির পরিমাণ ক্রমেই কমিয়ে আনার জন‌্য সবুজ সংকেত দেয়। ফলে গত চার বছরে লিটার প্রতি ১৫.০২ টাকা দাম থেকে ২৩.৮০ টাকা বেড়ে বর্তমানে কেরোসিনের দাম ৩৬ টাকার কাছে এসে দাঁড়িয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে তাল রেখে গণবণ্টন ব‌্যবস্থা প্রতি মাসে কেরোসিনের দাম নির্ধারণ করে। সেই হিসাবে গত মে মাসে কেরোসিনের দাম ১৩.৯৬ টাকায় চলে যায়। কিন্তু তার পর থেকে তা ফের দ্বিগুণেরও বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। গত মাসেও কেরোসিনের দাম লিটার প্রতি ৩.৮৭ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

পেট্রোল ডিজেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে বিরোধীরা সংসদে সরব হলেও কেরোসিনের দাম নিয়ে কেউই কথা বলেনি। ফলে নিম্নবিত্ত ও নিম্নমধ‌্যবিত্তের প্রয়োজনের এই জ্বালানির মূল‌্যবৃদ্ধি চোখের আড়ালেই রয়ে গিয়েছে।

44