Categories
প্রথম পাতা

চিঠির প্রতিটি শব্দে মেখে আছে ভালোবাসা!! সৌমিত্রকে চিঠি সুজাতার

৩১/১/২০২১,ওয়েবডেস্কঃ দলীয় বিচ্ছেদ চির ধরাতে পারেনি ভালোবাসায় সেটি আবার নতুন করে মনে করলেন তৃণমূল নেত্রী সুজাতা মন্ডল খাঁ।

ঘটনার সূত্রপাত ঘটে গত ডিসেম্বরে, যখন হঠাৎই সুজাতা দেবী তার স্বামীর বিরুদ্ধে গিয়ে তৃণমূলে যোগদান করেন।
এর পর থেকেই শুরু হয় ঘর ভাঙার পালা। স্বামী বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ প্রকাশ্যে ইঙ্গিত দেন ঘর ভাঙার আঁচ। এবং তার কথা প্রমান হয় কিছুদিনের মধ্যে স্ত্রী কে পাঠানো তার ডিভোর্স নোটিস।

এরপর সুজাতা বারংবার মনে করাতে থাকেন তাদের একান্ত ভালোবাসার মুহূর্ত গুলির কথা। এ কথাও বলেন যে রাজনৈতিক দল কনো সম্পর্কে চিড় ধরাতে পারে না।

ডিভোর্স নোটিসের পরিপ্রেক্ষিতে স্বামী সৌমিত্রকে চিঠি লেখেন সুজাতা, “আমি কোনওদিনও বিচ্ছেদ চাইনি। আমি আজও ডিভোর্সে রাজি নই। তোমার থেকে আলাদা হব, একথা আজও আমি ভাবতে পারি না।” তিনি তাদের পুরোনো স্মৃতি মন্থন করে লেখেন, “গত ১০ বছরে একসঙ্গে বহু চড়াই-উতরাই আমরা পেরিয়েছি। সব পরিস্থিতিতে আমি তোমার পাশে থেকেছি। সঙ্গে থেকেছি। কিন্তু তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরই তুমি আমাকে পর করে দিলে।”

তাঁর প্রতি সৌমিত্র এর ভালোবাসা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন সুজাতা। লেখেন, “বিজেপি ছাড়তেই তুমি কান্নাকাটি করলে, বললে ওরা তোমার ঘরের লক্ষ্ণী চুরি করেছে। আবার বিচ্ছেদের নোটিসও পাঠালে। যদি সত্যিই ঘরের লক্ষ্ণী মনে করতে তবে কি পারতে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিতে? আর যদি তা মনে না কর, তাহলে তুমি যে অভিনয় করেছ, তা নিঃসন্দেহে দারুণ।”

সৌমিত্র তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যে অভিযোগ করেছেন বলেও এদিন দাবি করেন সুজাতা। পাশাপাশি গোটা ঘটনার জন্য বিজেপিকে কাঠগড়ায় তোলেন তিনি। বলেন, “তোমার আমাকে ডিভোর্সের নোটিস পাঠানোই প্রমাণ করে দিল যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে সমস্ত স্ত্রীকে নিজেদের স্বপ্ন বিসর্জন দিতে হবে।” দাবি করলেন, বিজেপি সৌমিত্রকে ভুল বোঝাচ্ছে। আত্মবিশ্বাসী সুজাতা লেখেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়েই লড়বেন তিনি। চিঠির শেষভাগে স্বামীকে তাঁর সিদ্ধান্ত পুর্নবিবেচনার পরামর্শ দেন সুজাতা। ফের বলেন, ভালবাসার কথা। উল্লেখ্য, কিছু জিনিস আনতে ১ ফেব্রুয়ারি সৌমিত্রর বাড়িতে যাবেন বলেও চিঠিতে জানিয়েছেন সুজাতা।

75

Leave a Reply