https://kulikinfoline.com/vid-20210129-wa0075-mp4/

পশুপালনের মাধ্যমে গ্রামীন অর্থনীতির বিকাশ ঘটানোর লক্ষ্য সামনে রেখে কালিয়াগঞ্জে অনুষ্ঠিত হল প্রানী সম্পদ বিকাশ মেলা। শুক্রবার দুপুরে উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জের বোঁচাডাঙ্গা পঞ্চায়েতের তরঙ্গপুর নন্দকুমার হাইস্কুল ময়দানে শুরু হয় ব্লক প্রাণী সম্পদ বিকাশ মেলা। প্রদীপ প্রজ্বলিত করে এই মেলার উদ্বোধন করেন জেলা পরিষদের কো-মেন্টর অসীম ঘোষ ও পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দীপা সরকার। উপস্থিত ছিলেন পঞ্চায়েত সমিতির প্রানী সম্পদ কর্মাধ্যক্ষ মিনতি বর্মন, জেলা ও ব্লক প্রানী সম্পদ দপ্তরের অধিকর্তা সৌমেন বসাক, দিব্যেন্দু বিকাশ কর্মকার ও মহম্মদ আজিজ শেখ প্রমুখ। গাভী প্রদর্শনী, টিকাকরণ এবং পশুপালনের মাধ্যমে আয়ের উৎস নিয়ে আলোচনা সভা ছিল এই প্রানী সম্পদ বিকাশ মেলায়।
কালিয়াগঞ্জ ব্লক প্রানী সম্পদ বিকাশ মেলায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে উত্তর দিনাজপুর জেলা পরিষদের কো-মেন্টর অসীম ঘোষ তুলে ধরেন গ্রামীন কৃষি নির্ভর পরিবারের কাছে পশুপালনের মাধ্যমে আয় কতটা গুরুত্বপূর্ণ। ডিম, মাংস ও দুধের মতো প্রোটিন জাতীয় খাবারের যোগান অব্যাহত রাখতে গ্রামীন পশুপালন বিরাট ভূমিকা রয়েছে। হাঁস, মুরগী, ছাগল ও গো পালনের মাধ্যমে গ্রামবাংলার গরীব মানুষের সামনে আয়ের পথ তৈরি হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের প্রানী সম্পদ বিকাশ দপ্তরের মাধ্যমে এই পশুপালনে যুক্তদের অনুদান দেওয়া হচ্ছে। যে সকল বেকার যুবক-যুবতিরা খামার গড়ে পশুপালন করতে চায়, তাদের জন্য সরকারি অনুদানের ব্যবস্হা রয়েছে। প্রানী সম্পদ বিকাশ মেলার এই মঞ্চে ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আসর।

বাইটঃ- জেলা ও ব্লক প্রানী সম্পদ দপ্তরের অধিকর্তা সৌমেন বসাক

42