আবারও সরকারি বঞ্চনার শিকার হলেন রাজ্যের পার্শ্ব শিক্ষকরা। ৪১দিন ধরে আন্দোলন করার পর সরকারের কাছ থেকে আলোচনার ডাক পেয়ে আশার আলো দেখেছিলেন প্যারা টিচাররা।সেই মত আজ শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সাথে দেখা করেন পার্শ্বশিক্ষক ঐক্য মঞ্চের নেতৃত্ব।কিন্তু আজ আলোচনার টেবিলে পার্থ চট্টোপাধ্যায় তাঁদেরকে সম্পূর্ণ হতাশ করে বলেন যে, তিনি পার্শ্ব শিক্ষকদের স্থায়ীকরণ বা বেতন বৃদ্ধির দাবি মেনে নিতে পারবেন না। শুধু ২০১৯সালের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ৩% ইনক্রিমেন্ট বৃদ্ধি করতে পারেন।

আলোচনা ফলপ্রসূ না হওয়ায় স্বভাবতই ক্ষুব্ধ হয়েছেন শিক্ষক নেতৃত্ব। বাইরে বেরিয়ে এসে পার্শ্বশিক্ষক ঐক্য মঞ্চের যুগ্ম আহ্বায়ক ভগীরথ ঘোষ ও মধুমিতা বন্দোপাধ্যায় সাংবাদিকদের জানান যে, “শিক্ষামন্ত্রী তাঁদের বেতন বৃদ্ধি বা স্থায়ীকরণ করতে পারবেন না বলে স্পষ্ট জানিয়েছেন।”

মধুমিতা বন্দোপাধ্যায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন যে ” বিধানসভা ভোটের আগে সরকার আমাদের সাথে আবারও বঞ্চিত করলো। আমরা ৪৮ হাজার পার্শ্বশিক্ষক ও অন্যান্য চুক্তি ভিত্তিক শিক্ষকরা মিলিয়ে প্রায় ২লক্ষ মানুষ ও তাঁদের পরিবারের সাথে এই প্রতারণার করলো সরকার।”

তবে ভগীরথ ঘোষ ও মধুমিতা বন্দোপাধ্যায় স্পষ্ট জানিয়েছেন যে তাঁরা আন্দোলন কোনমতেই তুলে নেবেন না। এতদিন তাঁরা সরকারের প্রতি আস্থা রেখেই আন্দোলন করছেন। এবার তাঁদের সেই আস্থায় ফাটল ধরেছে। তাঁরা আরও তীব্র আন্দোলনের পথেই হাঁটবেন।

195