প্রায় দুই মাস ধরে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে গেলেও শেষ পর্যন্ত আজ প্রজাতন্ত্র দিবসের সকালে কৃষকদের ট্র্যাক্টর র‍্যালি ঘিরে কয়েকটি জায়গায় ধুন্ধুমার কাণ্ড ঘটল। দিল্লির সিংঘু সীমানা, গাজীপুর সিমান্ত, অক্ষর ধাম প্রভৃতি পয়েন্টে পুলিশের ব্যারিকেড ভাঙার অভিযোগ উঠল বিক্ষোভরত কৃষকদের বিরুদ্ধে। পালটা একাধিক জায়গায় লাঠিচার্জ করে পুলিশ। ফাটানো হয় প্রচুর সংখ্যক কাঁদানে গ্যাসের শেলও। কেন্দ্রের তিন বিতর্কিত কৃষি আইনের প্রতিবাদে মঙ্গলবার দিল্লিতে ট্র্যাক্টর র‍্যালির ডাক দিয়েছেন দেশের অন্নদাতারা। টালবাহানার পর শেষমেশ কৃষকদের র‍্যালির অনুমতি দিয়েছে দিল্লি পুলিশ

রবিবারই কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর আবার আন্দোলন-জটের নেপথ্যে ‘অদৃশ্য শক্তির’ উল্লেখ করেন। পাশাপাশি কৃষকদের ট্র্যাক্টর মিছিলকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা ঘটানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছিল অমিত শাহের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীনস্থ দিল্লি পুলিশ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে বলা হয়েছে গোয়েন্দা সূত্রে খবর রয়েছে পাকিস্তান থেকে ৩০০টির মত ট্যুইটার হ্যান্ডল ব্যবহার করা হয়েছে শুধুমাত্র ভারতে প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে বিশৃঙ্খলা তৈরির জন্য। জানুয়ারির ১৩ থেকে ১৮ তারিখের মধ্যে ওই অ্যাকাউন্টগুলি খোলা হয়েছে বলে দাবি। পাকিস্তান থেকে যে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে বলে দাবি করা হয়েছে।

55