https://kulikinfoline.com/vid-20210102-wa0022-mp4/

দিনহাটাঃ তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দলে উত্তেজনা ছড়াল। ঘটনার গুলিবিদ্ধ একজন ব্যবসায়ী ও গুরুতর আহত একজন সিভিক ভলেন্টিয়ার। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে দিনহাটা থানার পুলিশ।

জানা গিয়েছে, তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার সন্ধ্যায় দিনহাটা ১নম্বর ব্লকের ওকড়াবাড়ি বাজার এলাকায় এক অনুষ্ঠান চলছিলো। অভিযোগ সেই অনুষ্ঠান শেষ হতেই তৃণমূল কংগ্রেসের অপর পক্ষ অনুষ্ঠানের মঞ্চ ভাঙ্গচুর করে পাশাপাশি স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙ্গচুর চালায়। ২ টি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। ঘটনায় এক ব্যবসায়ী আল সাফ আলী গুলিবিদ্ধ হয় ও দিনহাটা থানার সিভিক ভলেন্টিয়ার হামিদুর রহমান আহত অবস্থায় দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তৃণমূল কংগ্রেসের দিনহাটা ১ নম্বর ব্লক সভাপতি প্রসন্ন দেব শর্মা র সাথে দলের স্থানীয় নেতৃত্বের মধ্যে মতানৈক্য দেখা যায়। তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবসে ওকড়াবাড়ি এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে দুটি পৃথক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অভিযোগ সেই অনুষ্ঠান শেষ হতেই তৃণমূল কংগ্রেসের অপর পক্ষ অনুষ্ঠানের মঞ্চ ভাঙ্গচুর করে পাশাপাশি স্থানীয় তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে ভাঙ্গচুর চালায়। চলে ওকড়াবাড়ি বাজারে এলোপাথাড়ি গুলি। এরই জেরে গুলিতে আহত হয় পেশায় সবজি ব্যবসায়ী আল সাফ আলী। পাশাপাশি ডিউটি শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে দিনহাটা থানার সিভিক ভলেন্টিয়ার হামিদুর রহমান কে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। যদিও তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে গোষ্ঠী কোন্দলের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেওয়া হয়। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, আল সাফ আলীর বাঁ হাত দিয়ে গুলি ঢুকে ডান হাত দিয়ে বেরিয়ে গেছে ও সিভিক ভলেন্টিয়ার এর মাথায় গুরুতর চোট লাগে। এই ঘটনার জেরে এলাকার বিধায়ক জগদীশ বর্মা বসুনিয়া গোষ্ঠীর কর্মী সমর্থকরা দোষীদের শাস্তির দাবিতে ওকড়াবাড়ি বাজারের পথ অবরোধ করে। এলাকার তৃণমূল নেতা নূর আলম হোসেন এ বিষয়ে বলেন, “বিজেপির কিছু দুষ্কৃতীরা তৃণমূল কংগ্রেসের চামড়া গায়ে দিয়ে এই ধরনের জঘন্যতম ঘটনা ঘটিয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের কোন গোষ্ঠী কোন্দল নেই বলে তিনি সাফ জানিয়ে দেন।”

76