২৮/১২/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ

নিরাপদে টাকা রাখার জায়গা হল ব্যাংক। যেখানে নির্দিষ্ট সময় পর মোট সঞ্চিত অর্থের বৃদ্ধি ঘটে। কিন্তু সেই জায়গাতেই হঠাৎ করে ঝুলে যাচ্ছে তালা। এবার এরকম ঘটনা ঘটলো মুর্শিদাবাদের আয়েশবাগ সমবায় কৃষি উন্নয়ন সমিতির ব্যাংকে। প্রায় ৫০০০ জন গ্রাহক রয়েছে ওই ব্যাংকে। গ্রাহকদের প্রাপ্য টাকা না মিটিয়েই আচমকাই নোটিশ টানিয়ে তালা লাগিয়ে চম্পট দেয় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এই ঘটনার পরেই মাথায় হাত গ্রাহকদের। পুরো ঘটনার পেছনে জন্য স্থানীয় এক তৃণমূল নেতার নাম উঠে আসে। ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে তা ফেরত না দেওয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি গ্রাহকদের। এক গ্রাহক জানিয়েছেন, “কষ্ট করে আমরা ওখানে টাকা জমিয়েছিলাম কিন্তু আমাদের ম্যাচিউরিটির টাকাও ফেরত দেয়নি। পরে নেওয়ার জন্য বলেছিল। সেখানে হঠাৎ করেই ম্যানেজার কোর কমিটির লোক কারোর পাত্তা নেই।আমরা বৃহত্তর আন্দোলনে যাব। রাস্তা অবরোধ করব। আর আমাদের টাকা যারা মেরেছে তাদের সম্পত্তি আমরা সবাই মিলে নিয়ে টাকা নেব। “অন্যদিকে জেলা সূত্রে খবর, এক স্থানীয় তৃণমূল নেতাকে প্রায় ২৭ কোটি টাকা ধার নিয়ে তার শোধ করেননি। আবার জেলা সমবায় থেকে দফায় দফায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ২৭.৫ কোটি টাকা ঋণ নেয়। অবশেষে বিপুল পরিমাণ অনাদায়ী ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে ব্যাংক বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। বিপদের মুখে পড়া গ্রাহকরা প্রতিকারের আশায় মখ্যমন্ত্রীর দারস্থ হয়েচে। অভিযুক্ত স্থানীয় তৃণমূল নেতা অসীম ভট্টর কোন খোঁজ মেলেনি।

128