Categories
অন্য খবর

উত্তর প্রদেশে লাভ জেহাদ আইনে প্রথম আটক যুবতিকে গর্ভপাত করানোর অভিযোগ

১৪/১২/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ

লাভ জেহাদ আইনে দেশে প্রথম মহিলা হিসেবে আটক হওয়া মুসকান জাহান নামে ২২ বছরের ওই যুবতীকে জোর করে গর্ভপাত করানোর অভিযোগ উঠল উত্তরপ্রদেশে।এই ঘটনাটি ঘটেছে মোরাদাবাদ জেলার একটি সরকারি আশ্রয় কেন্দ্রে।ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই প্রবল বিতর্ক শুরু হয়েছে । যোগী সরকারের সমালোচনায় সরব হয়েছে বিরোধী থেকে শুরু করে নেটিজেনরা।

স্থানীয় সূত্রে খবর, বছরখানেক আগে মোরাদাবাদের ২৬ বছরের যুবক রশিদ সেলুনের কাজের জন্য উত্তরাখণ্ডের দেরাদুনে গিয়েছিলেন। সেখানে গিয়ে উত্তরপ্রদেশেরই এক হিন্দু যুবতী পিঙ্কির সঙ্গে পরিচয় হয় তাঁর। আস্তে আস্তে ঘনিষ্ঠতা গড়ে ওঠার পর বিয়ে করে দু’জনে। আর তার পরে ধর্ম পরিবর্তন করে পিঙ্কি থেকে মুসকান জাহান নাম নেয় ২২ বছরের ওই যুবতী। দেরাদুন থেকে ফির মোরাদাবাদে স্থানীয় একটি সেলুনে কাজ নেয় রশিদ।সেখানেই বাবা ও মায়ের সঙ্গে স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস শুরু করেন। সম্প্রতি বিষয়টি জানা জানি হতেই রশিদ ও মুসকানকে আটক করে উত্তরপ্রদেশের পুলিশ। রশিদকে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখা হলেও মুসকানকে মোরাদাবাদের একটি সরকারি আশ্রয়কেন্দ্রে আটকে রাখা হয়েছিল। সেখানকার স্বাস্থ্যকর্মীরা ওই যুবতীর শরীরে ইঞ্জেকশন দিয়ে তাঁর গর্ভজাত সন্তানকে খুন করেছে বলে অভিযোগ
রবিবার এপ্রসঙ্গে রশিদের মা অভিযোগ করেন, শনিবার আমাকে ফোন করে মুসকান জানায় প্রচণ্ড রক্তক্ষরণের পর তাঁর গর্ভপাত হয়েছে। মুসকান ধর্মান্তরিত হয়ে রশিদকে বিয়ে করেছে বলেই ওকে ইঞ্জেকশন দিয়ে সন্তানকে হত্যা করা হয়েছে । এমনটাই অভিযোগ রশিদের মায়ের।

53

Leave a Reply