ওয়েবডেস্ক, ডিসেম্বর ১,২০২০: মেটানো হচ্ছে না আইনি জটিলতা।সাত বছর ধরে নিয়োগের প্রতীক্ষায় রাজ্যের উচ্চ প্রাথমিকের  শিক্ষক পদের চাকরি প্রার্থীরা। নিয়োগ প্রক্রিয়া থমকে আছে। সরকার, হাইকোর্ট, এমনকী নেতা-মন্ত্রীদের কাছে আবেদন-নিবেদন করেও এখনও কোন আশার আলো দেখতে পাননি এই চাকরি প্রার্থীরা।

সারা দেশে বেকারত্বের হার সর্বোচ্চ।রাজ্যেও বন্ধ সরকারি চাকরিতে নিয়োগ।এই পরিস্থিতিতে দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আন্দোলনে নামলেন আপার প্রাইমারি শিক্ষক পদের চাকরিপ্রার্থীরা।আজ একই সাথে বিকাশ ভবন ও আচার্য সদন অভিযান ছিল  তাঁদের।বিকাশ ভবনে অভিযানে চাকরিপ্রার্থীরা দলে দলে করুনাময়ী বাস স্ট্যান্ড জমা হওয়া শুরু করতেই আজ সকালে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে বিধান নগর থানায় নিয়ে চলে যায়। এর ফলে কিছুটা থমকে যায় তাদের আন্দোলন। কিন্তু তা সত্বেও হাজার হাজার চাকুরিপ্রার্থী সফলভাবে আচার্য সদন অভিযান চালান সর্বশেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী জোরদার চলছে তাদের আন্দোলন।

চাকরি পাওয়া নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দোটানায় ভুগছেন বাংলার বহু আপার প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীরা। করোনা রুখতে লকডাউনের কারণে সেই হাইকোর্টের শুনানিও থমকে গিয়েছে। ক মাস আগেই , উম্পুনের পর তাই সরকার ও আদালতের কাছে অভিনব উপায়ে আবেদন জানিয়েছিলেন তাঁরা। আপার প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীরাও এগিয়ে এসেছিলেন বৃক্ষ রোপন কর্মসূচিতে। আর সেই কর্মসূচির মাধ্যমেই তাঁরা সরকার ও আদালতের কাছে আবেদন রেখেছিলেন, যত দ্রুত সম্ভব যাতে মামলার প্রক্রিয়া এগোতে পারে। 

কিন্তু কোন ভাবেই তাদের দাবি পুরণ না হওয়ায় এবার সরাসরি রাস্তায় নেমে আন্দোলন  চালাচ্ছেন রাজ্যের আপার প্রাইমারি চাকরি প্রার্থীরা।

111