25/11/2020,ওয়েবডেস্কঃ

বেশ কদিন আগে রায়গঞ্জের দেবীনগরের দেবীতলা এলাকা থেকে এক ব্যক্তির পচাগলা মৃত দেহ উদ্ধার হয়। গতকাল সেই মৃত ব্যক্তির ছেলে বাবার নিখোঁজ ডায়েরি করতে রায়গঞ্জ থানায় পৌঁছালে পুলিশের তরফ থেকে তাকে রায়গঞ্জ মর্গে যেতে বলেন। জানা যায় মৃতের নাম কৃষ্ণপদ গোস্বামী (৫৭)। তাঁর বাড়ি অসমের আমগুড়ি থানার জয়পুর গ্রামে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। সেই ঘটনারই তদন্ত চলছিল।

মৃতের ছেলে জানান, তাঁর বাবার অসমে একটি আশ্রম রয়েছে। উত্তর দিনাজপুর সহ পশ্চিমবঙ্গের বহু বৃদ্ধ-বৃদ্ধা তাঁর বাবার কাছে দীক্ষা নিয়েছেন। মাস ছয়েক আগে রায়গঞ্জ শহরের দেবীনগর এলাকায় শিষ্যদের বাড়ি থাকতে এসেছিলেন তিনি। দেবীনগরের বাসিন্দা বিশ্বনাথ সাহা বলেন, ‘ওই স্বামীজির প্রচুর শিষ্য রয়েছে রায়গঞ্জে। চলতি মাসের ১ তারিখ আমাদের বাড়িতে এসেছিলেন। ‌দিন দশেক থাকার পর অসমে যাওয়ার কথা ছিল। সম্প্রতি, পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পারি তিনি অসমের বাড়িতে যাননি।’ এদিন সকালে অসম থেকে কৃষ্ণপদ গোস্বামীর পরিবারের লোকেরা রায়গঞ্জ থানায় আসলে তাঁদের হাসপাতাল মর্গে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। এরপর মৃতদেহ শনাক্ত করা হয়। এদিন বিকেলে মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেয় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। তবে পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, ওই ব্যক্তি আত্মহত্যা করেন। ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ

46