আয়করের আওতাভূক্ত নয়, এমন প্রতিটি পরিবারের জন্য প্রতি মাসে নগদ ৭৫০০ টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা, ঐ সমস্ত পরিবারকে মাথাপিছু দশ কেজি করে খাদ্যশস্য দেওয়া,
গ্রামীন রেগা প্রকল্পে ২০০ দিনের কাজ নিশ্চিত করতে হবে,এই প্রকল্প শহরেও চালু করা,
সংসদে জবরদস্তি করে পাস করানো শ্রমকোড বাতিল করা,
কৃষি ও কৃষকের স্বার্থ বিরোধী তিনটি কৃষি আইন বাতিল করা,
রাষ্ট্রায়ত্ত্ব শিল্পসংস্থায় ঢালাও বেসরকারীকরণ বন্ধ করা, বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত ও সরকারি সংস্থায় চাপিয়ে দেওয়া বাধ্যতামূলক অবসর প্রকল্প বাতিল করা এবং
অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমজীবী মানুষদের জন্য সামাজিক সুরক্ষা প্রকল্প সহ সার্বজনীন পেনশন চালু করার ৭ দফা দাবীতে আগামী ২৬শে নভেম্বর দেশজুড়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে দেশের বামপন্থী শ্রমিক ও কৃষক সংগঠন গুলি।কংগ্রেসও বামেদের এই আন্দোলনের সমর্থন করছে বাম কংগ্রেসের যৌথ কর্মসূচির ভিত্তিতে।

ধর্মঘটকে কেন্দ্র করে সারা দেশেই আন্দোলনে নামতে দেখা যাচ্ছে বাম কংগ্রেসকে।

উত্তর দিনাজপুর জেলাতেও ধর্মঘটের সমর্থনে লাগাতার প্রচার কর্মসূচি গ্রহন করছে বামফ্রন্ট।সারা জেলাতেই ধর্মঘটের সমর্থনে ছোট বড় সভা করা হচ্ছে।গ্রামে গ্রামে করা হচ্ছে বাজার সভা, হাটসভা, বাইক মিছিল।শহরাঞ্চলেও মিছিল, পথসভা করে ধর্মঘটের দাবীগুলি তুলে ধরা হচ্ছে সাধারণ মানুষের সামনে।

উল্লেখ্য, সিআইটিইউসহ বামপন্থী শ্রমিক ও কৃষক সংগঠনগুলি দেশে লাগাতার মূল্যবৃদ্ধি, সরকারি চাকরিতে নিয়োগ বন্ধ করে দেওয়া,
লাভজনক সরকারি সংস্থাগুলির ঢালাও বেসরকারিকরনের প্রতিবাদে আগামী ২৬শে নভেম্বর সারাদেশে ধর্মঘট পালন করার ডাক দিয়েছে।

উত্তর দিনাজপুরের, চোপড়া, ইসলামপুর, রায়গঞ্জ, কালিয়াগঞ্জ, ইটাহার,পাঞ্জিপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রচার করছে বামপন্থী বিভিন্ন সংগঠন।বিভিন্ন বামপন্থী সংগঠনের রাজ্য নেতৃত্বকেও উপস্থিত হতে দেখা যাচ্ছে এই জেলার প্রচার কর্মসূচীতে।চোপড়ায় অনুষ্ঠিত ধর্মঘটের প্রচার সভায় উপস্থিত ছিলেন বাম যুব সংগঠনের রাজ্য নেতৃত্ব হিমোঘ্নরাজ ভট্টাচার্য।

69