২৩/১১/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ

ইতিমধ্যে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে। ফলে নতুন করে লকডাউনের পথে ফিরছে সেই সকল দেশগুলো। দিল্লির পাশাপাশি পাঞ্জাব, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানাতেও আবার এই ভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে। সংক্রমণ ঠেকাতে আমেদাবাদের জারি করা হয়েছে কারফিউ। যদিও কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন বলছেন 2021 এর প্রথম তিন মাসের মধ্যেই ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে ভারতে। অন্যদিকে কারফিউ জারি করেছে আমেদাবাদ, বড়দা, রাজকোট শহর। যেখানে সকাল ন’টা থেকে বিকেল ৬ পর্যন্ত চলবে। এই সময়ে কোন ধর্মীয় অনুষ্ঠানের অনুমতি দেয়া হবে না বলে জানানো হয়েছে। আগামীকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার বাংলার সংক্রমণ নিয়ে কিছুটা স্বস্তি থাকলেও করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে একাধিক রাজ্যে। ফলে চিন্তার ভাঁজ মমতার কপালেও। পরিস্থিতি সামাল দিতে এবং করোনা মোকাবিলায় কিভাবে তৈরি করা হবে রণনীতি তা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে বৈঠকে বসতে চলেছেন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। বেশ কিছুদিন আগেই করোনা সংক্রমণ দেশে 30 হাজারের নিচে নেমে গেছিল তারপরে হঠাৎ করে আবার গ্রাফ ঊর্ধ্বগামী হতে শুরু। করে গত 24 ঘন্টায় ভারতে নতুন করে করোনা সংক্রামিত হয় 44 হাজার59 জন। এর ফলে দেশে মোট করণ সংক্রমিত রোগের সংখ্যা দাঁড়ায় 91 লাখ 39 হাজার 866 জন। গতকাল মৃত্যু হয়েছে 511 জনের। মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 1 লক্ষ 30 হাজার 738। এখনো দেশে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা 4 লক্ষ 43 হাজার 486। এখনো পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে গোটা দেশে 5 কোটি 89 লাখ 85 হাজার 500 জন। মৃত্যু হয়েছে 13 লাখেরও বেশি মানুষের।

80