পুষ্পাঞ্জলী

বাঁশি খানি বিদায়ের বেজেছে যখন

তিন পাত্তি ফেলে উঠে গেলেন তিনি

রেখে গেলেন ছড়িয়ে আলোদের কনা

জীবনটা হয়ে গেল তাঁর কাছে ঋণী ।।

সবাইকে যেতে হয় মঞ্জিল ছেড়ে

কেউ কেউ থেকে যান মনের গভীরে

সময়  বা অসময় হারালো যে ধন

মুল্য তার বাড়তে, থাকে ধীরে ধীরে ।।

আরো কিছু পেতে মন যখনই তাঁকে

খুঁজে যায় অবিরাম প্রতিটি পাতায় 

দেখে সব পরিপাটি যত্নে আদরে

যা ছিল রেখে গেছেন জীবন খাতায়।।

বিলিয়ে ভিখারি নন দানবীর রাজা

খালি নয় হাত মোটে ভরা তার থলি

নিয়েছেন খুঁটে খুঁটে হৃদয়টি ভরে

শ্রদ্ধায় মুড়ে দেয়া পুষ্পাঞ্জলী ।।

47