21/11/2020,ওয়েবডেস্কঃ

আগামী 26 শে নভেম্বর দেশজুড়ে সাধারণ ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে কৃষক ও কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলো।ব্যাংক ইউনিয়ন গুলি ও কৃষক ও শ্রমিকদের দাবির প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছে। সেই দাবির সাথে যুক্ত হয়েছে তাদের নিজস্ব দাবি-দাওয়া। আগামী 26 শে নভেম্বর আসন্ন সাধারণ ধর্মঘট শামিল হতে চলেছে অধিকাংশ ব্যাংক ইউনিয়নগুলি। এমনকি সেই ধর্মঘটের যোগদান করতে চলেছে রিজার্ভ ব্যাংকের কর্মীরাও। এমনটাই জানানো হয়েছে আন্দোলনকারীদের পক্ষ থেকে। যার ফলে সেই দিনটিতে দেশের সামগ্রিক ভাবে ব্যাংকিং ব্যবস্থা অচল হয়ে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বেসরকারিকরণ, আউটসোর্সিং এবং নয়া পেনশন প্রকল্পের প্রতিবাদ এছাড়াও শূন্য পদে কর্মী নিয়োগ সহ একাধিক দাবিতে দীর্ঘদিন থেকে আন্দোলন চালিয়ে আসছে ট্রেড ইউনিয়ন গুলো। এর সঙ্গে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোতে আমানতের সুদের হার হ্রাস, ব্যাংকের চার্জের মত গ্রাহকদের সঙ্গে জড়িত বিষয়গুলো রয়েছে। সকল বিষয়কে সামনে রেখে আগামী 26 নভেম্বর ইউনিয়নগুলো ধর্মঘটে সামিল হবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন। এছাড়াও এই মাসে তিনটি ব্যাংক fd তে সুদ কমিয়েছে। এরমধ্যে আবার একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক আছে। বাকি ব্যাংকগুলো সেই পথেই ধরতে পারে বলে আশঙ্কা করছে সকলেই। ভারতের বৃহত্তম ব্যাংক sbi কে সাধারণ নাগরিকদের জন্য ন্যূনতম সুদের হার 2.9 শতাংশ। চূড়ান্ত সমস্যার মধ্যে রয়েছে মধ্যবিত্ত থেকে শুরু করে প্রবীণ নাগরিক। ব্যাংক কর্মীদের বৃহত্তম সংগঠন এআইবিএ জানান মোদি সরকারের কৃষক, শ্রমিক, দেশের অর্থনীতি বিরোধী পদক্ষেপের বিরুদ্ধে এই ধর্মঘট হতে চলেছে। এছাড়াও ব্যাংক কর্মচারীদের অন্যতম বৃহৎ সংগঠন বিএফ আই এক বিবৃতিতে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার দুর্নীতি বিরোধী কার্যকলাপ রুখে দেওয়ার জন্য এই ধর্মঘট।

32