26/10/2020,ওয়েবডেস্কঃএবারের আইপিএল ১৩ শেষ হতেই সোজা অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবে ভারতীয় ক্রিকেট দল। অজিদের বিরুদ্ধে চার টেস্ট এবং ৩টি করে ওয়ানডে এবং টি-২০ ম্যাচ খেলবে টিম ইন্ডিয়া। শোনা যাচ্ছে, করোনা, কোয়ারেন্টাইন এবং বায়ো বাবলের কথা মাথায় রেখে অস্ট্রেলিয়ায় একেবারে ৩২ জনের দল পাঠাবে BCCI। যাতে সিরিজের মাঝপথে আর কাউকে উড়িয়ে নিয়ে যেতে না হয়। স্বাভাবিকভাবেই আইপিএলের পর এই মেগা দল নির্বাচন নিয়ে জল্পনা চলছে ক্রিকেট মহলে। এবারের ভারতীয় দলে বেশ কিছু নতুন মুখ সুযোগ পেতে পারেন। বিশেষ করে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের সূর্যকুমার যাদবের সুযোগ পাওয়া কার্যত নিশ্চিত। সূর্য দীর্ঘদিন ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজের জাত চিনিয়েছেন। আইপিএলেও মুম্বইয়ের জন্য ম্যাচ উইনার হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। তাছাড়া মিডল অর্ডারে সূর্যকুমার আর মণীশ পাণ্ডে ছাড়া আর কোনও ব্যাটসম্যান সেভাবে পারফর্ম করতে পারছেন না। তাই সূর্যকে ভারত দেখছে ফিনিশার হিসেবে। বোর্ড সূত্রের খবর, অস্ট্রেলিয়াগামী ওয়ানডে এবং টি-২০ দলে তাঁর সুযোগ পাওয়া কার্যত নিশ্চিত। এই সীমিত ওভারের দলে আরও একজন নতুন মুখ সুযোগ পেতে পারেন। তিনি হলেন কেকেআর পেসার প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ। সূত্রের খবর, এখনই প্রসিদ্ধকে সুযোগ দেওয়ার কথা ভাবছেন নির্বাচকরা। কারণ গত কয়েক মরশুমেই নিয়মিত পারফর্ম করছেন তিনি। এদিকে, ওপেনিং স্লট নিয়ে কঠিন সমস্যায় ভারতীয় দলের নির্বাচকরা। রোহিত শর্মা সম্ভবত তিন ফরম্যাটেই ওপেনার হিসেবে প্রথম পছন্দ নির্বাচকদের। তাঁর সঙ্গে টেস্টে মায়াঙ্ক আগরওয়ালের খেলা নিশ্চিত। সেই সঙ্গে রইলেন লোকেশ রাহুল, পৃথ্বী শ’। শোনা যাচ্ছে টেস্ট টিম থেকেও এবার বাদ পড়তে পারেন কেকেআরের শুভমন গিল। ওয়ানডেতে উইকেটরক্ষক হিসেবেই খেলবেন রাহুল। সেক্ষেত্রে ঋষভ পন্থকে বাইরে বসতে হবে। সঞ্জু স্যামসন সুযোগ পেতে পারেন, তবে প্রথম একাদশে ঢোকার সম্ভাবনা কম। মিডল অর্ডারে সেই শ্রেয়স আইয়ার, মণীশ পাণ্ডেরাই অগ্রাধিকার পাবেন। এখনই সুযোগ হচ্ছে না নীতীশ রানা বা ইশান্ত কিষণের। ইশান্ত শর্মা এবং ভুবনেশ্বর কুমার ছিটকে যাওয়ার দরুন, বোলিং বিভাগে সুযোগ আছে তরুণদের। টেস্ট দলে দেশের প্রথম তিন পেসার হতে চলেছেন বুমরাহ, মহম্মদ শামি, উমেশ যাদব। তাঁদের সঙ্গে নবদীপ সাইনি সুযোগ পাবেন। পঞ্চম পেসার হিসেবে লড়াই মহম্মদ সিরাজ, খলিল আহমেদ, টি নটরাজন এবং প্রসিদ্ধ কৃষ্ণার মধ্যে। আইপিএলে বল না করলেও সীমিত ওভারের দলে সুযোগ পাবেন হার্দিক পান্ডিয়া।

46