২৩/১০/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ

এবছরের দুর্গোৎসব বিগত বছরগুলোর থেকে একেবারেই আলাদা। এবার উৎসব পালিত হচ্ছে বিশ্বের ত্রাস সৃষ্টিকারী করোণা আবহকালে।এই সময় করোনা যাতে বেশি ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য হাইকোর্ট থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে পুজো মণ্ডপ গুলোকে দর্শনার্থী শূন্য রাখতে। কিন্তু মানুষের ঢল রাস্তায়। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমন। সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। দুর্গাপূজার এই সময়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে হাই এলার্ট জারি হয়েছে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে। রাজ্যজুড়ে সকল স্বাস্থ্য দপ্তরের অফিসগুলো পুজোর ক’দিন খোলা থাকছে। অন্যদিকে পুজো উপলক্ষে রাজ্য স্বাস্থ্য ভবন নিজেদের কন্ট্রোল রুমের সংখ্যা বৃদ্ধি করছে।সূত্রের খবর, ২৪ ঘণ্টা সাতদিন চালু থাকছে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের সরাসরি টেলিমেডিসিন ও ইন্টিগ্রেটেড কল সেন্টার। নম্বর দু’টি হল ২৩৫৭৬০০১ এবং ১৮০০৩১৩৪৪৪২২২। করোনা সংক্রান্ত যে কোনও জিজ্ঞাসার জন্য এই দু’টি নম্বরে ফোন করা যাবে। করোনা রোগীদের অ্যাম্বুলেন্সের জন্য (কলকাতা) ০৩৩৪০৯০২৯২৯ নম্বর রয়েছে। কোন কোন জায়গায় করোনা পরীক্ষা হয়, জানা যাবে আইসিএমআর এবং রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের ওয়েবসাইটের মেডিক্যাল বুলেটিন অংশে। এছাড়াও রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের ওয়েবসাইট http://www.wbhealth.gov.in-এ গিয়ে করোনা জয়ীরা প্লাজমা দান করতে পারবেন। পাশাপাশি সরকার ও অধিগৃহীত বিভিন্ন করোনা হাসপাতালে নিজের প্রিয়জনের শারীরিক অবস্থার খোঁজখবরও নিতে পারবেন। এছাড়া রয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের করোনা সংক্রান্ত টোল ফ্রি ও হেল্পলাইন নম্বর ১০৭৫ এবং ৯১-১১-২৩৯৭৮০৪৬। করোনার কারণে মানসিক অবসাদ বা যে কোনও মানসিক সমস্যায় ০৮০৪৬১১০০০৭ নম্বরে ফোন করা যাবে। আর করোনা ছাড়া অন্য সমস্যার জন্য রাজ্যের সব সরকারি হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজ ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকছে। স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণস্বরূপ নিগম বলেন, আমাদের একটাই বার্তা—পুজোয় আনন্দ করুন নিয়ম মেনে।

71