রায়গঞ্জে কোঅপারেটিভ ব্যাঙ্কের এক এজেন্টের বিরুদ্ধে গ্রাহকদের কোটি টাকা তছরুপ করে উধাও হওয়ার অভিযোগে প্রতারিত গ্রাহকরা রায়গঞ্জ থানায় বিক্ষোভ দেখালো। রায়গঞ্জ রাসবিহারী মার্কেট অঞ্চলের বাসিন্দা রজত সাহা নামক ঐ বাসিন্দা রায়গঞ্জ সেন্ট্রাল কোঅপারেটিভ ব্যাঙ্কের এজেন্ট ছিলেন। তিনি গ্রাহকদের কাছে প্রাত্যহিক বা মাসিক হিসেবে টাকা সংগ্রহ করতেন। কিন্তু বেশ কিছু গ্রাহকের সঞ্চয় ম্যাচুওর করে গেলেও তাদের অর্থ ফেরত দেওয়ার ব্যাপারে বেশ কিছুদিন থেকে টালবাহনা করছিলেন। গ্রাহকদের মধ্যে ক্রমশ ক্ষোভ সঞ্চিত হওয়ায় রবিবার তার খোঁজ করতে কয়েকজন গ্রাহক তার বাড়িতে গিয়ে দেখেন বাড়িতে তালা দিয়ে সে বেপাত্তা হয়ে গেছেন। খবর ছড়িয়ে পরতেই গ্রাহকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে। গ্রাহকদের মধ্যে মহিলা বেশি। এরা নিজেদের কষ্টার্জিত টাকা কেউ দৈনিক ১০০টাকা তো কেউ ২০০ টাকা ব্যাঙ্কের ঐ এজেন্টের কাছে জমা করেছেন। এরপর গ্রাহকরা দলবেঁধে থানায় অভিযোগ জানাতে যায় এবং ঐ এজেন্ট কে দ্রুত গ্রেফতার করে তাদের টাকা ফেরতের ব্যবস্থার দাবি করে। ঐ এজেন্ট রজত সাহার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

জানা গেছে কারো দুলাখ তো কারো সত্তর হাজার টাকা পাওয়ার কথা ছিল। এদের মধ্যে একজন মহিলা জানিয়েছে যে অঘ্রান মাসে মেয়ের বিয়ে, সেজন্য তিনি দুলক্ষ টাকা সঞ্চয় করেছিলেন। টাকা ফেরত না পাওয়া গেলে আত্মহত্যা করা ছাড়া আর কোনো উপায় তার থাকবে না। জানা গেছে সব মিলিয়ে কমপক্ষে কোটি টাকা তছরুপ করেছে ঐ এজেন্ট।

174