সাম্প্রদায়িক বিভেদ ছড়াচ্ছেন কঙ্গনা রানাউত, এমন অভিযোগ এনে অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরের নির্দেশ দিল বান্দ্রা ম্যাজিস্ট্রেট মেট্রোপলিটন আদালত। একই অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন তাঁর দিদি রঙ্গোলি চান্দেলও। তাঁর বিরুদ্ধেও এফআইআর দায়েরের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বলিউড থেকে শুরু করে দেশের সাম্প্রতিক কালের সম্লস্ত রকম নিষয়ে বিরর্কিত মন্তব্য করেছেন কঙ্গনা৷ সম্প্রতি কৃষিবিল বিরোধীদের জনহি বলতেও দ্বিধা করেননি তিনি। এবার কঙ্গনার বিরুদ্ধে ধর্মীয় বিভেদ ছড়ানোর অভিযোগ আনেন কাস্টিং ডিরেক্টর এবং ফিটনেস ট্রেনার মুন্নওয়ারলি সৈঈদ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪ নম্বর অনু্চ্ছেদের ১৫৩এ, ১৯৫এ এবং ১২৪ ধারায় কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন মুন্নওয়ারলি। কিছুদিন আগে ক্যুইন অভিনেত্রী মুম্বইকে পাক অধিকৃত কাশ্মিরের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন৷ সেই প্রসঙ্গতেই অভিযোগ দায়ের করেছেন সঈদ। তিনি বলেছেন কঙনা খুব ভালো করেই জানান, তিনি একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী, তাঁর টুইট সহজেই অনেক মানুষের কাছে পৌঁছে যাবে। শুধু একটি নয়, অভিনেত্রী একাধিক টুইটে ধর্মীয় বিভেদে উস্কানি দিয়েছেন বলে অভিযোগ। পাশাপাশি, কংগনার একাধিক সাক্ষৎকারের ভিত্তিতেও তাঁর বিরুদ্ধে ধর্মীয় উত্তেজনা ছড়ানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।

কৃষিবিলের বিরুদ্ধাচরণ করে যে সিব কৃষকরা পথে নেমেছিলেন তাদের এক হাত নিয়েছিলেন কঙ্গনা রানাউত। এর ফল বরং অপ্রীতিকরই হয়। অনেকেই কংনার বিপক্ষে গিয়ে মন্তব্য করেন। চাষীদের বিরুদ্ধে কংনার টুইটের জন্যও অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে গত ৯ অক্টোবর এফআইআর দায়েরের নির্দেশ দিয়েছে কর্ণটকের একটি আদালত।

18