১৬/১০/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ

দীর্ঘ লকডাউন আর আর্থিক মন্দার জেরে জাতীয় অর্থনীতি বেহাল হলেও তার উল্টো ছবিই দেখা গেলো প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সম্পত্তির পরিসংখ্যানে। জানা গেছে এই সময়ে দাঁড়িয়েও গত বছরের তুলনায় নিট সম্পত্তি বেড়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে (পিএমও) জমা দেওয়া সর্বশেষ সম্পদের তথ‍্য থেকেই একথা জানা গেছে। যদিও আবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের নিট সম্পত্তির পরিমাণ এইসময়ে কমেছে।

সংবাদে প্রকাশ, সর্বশেষ সম্পদের ঘোষণাপত্র অনুযায়ী, চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ২.৮৫ কোটি। গত বছর এই সময়ে প্রধানমন্ত্রীর সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ২.৪৯ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক বছরে প্রধানমন্ত্রীর সম্পত্তি বেড়েছে প্রায় ৩৬ লক্ষ। তথ‍্য অনুযায়ী, এই ৩৬ লক্ষ টাকার মধ্যে ব‍্যাঙ্ক আমানত রয়েছে ৩.৩ লক্ষ‌ টাকার এবং সেভ ইনভেস্টমেন্টের রিটার্ন রয়েছে ৩৩ লক্ষ টাকার‌।

২০২০ সালের জুন মাসের শেষের দিকে প্রধানমন্ত্রী মোদীর হাতে নগদ অর্থ হিসেবে মাত্র ৩১ হাজার ৪৫০ টাকা ছিল। এবং তাঁর এসবিআই গান্ধীনগর এনএইচসি ব্রাঞ্চের ব‍্যাঙ্কে ৩ লক্ষ ৩৮ হাজার ১৭৩ টাকা ছিল। এই একই শাখায় তাঁর ১ কোটি ৬০ লক্ষ ২৮ হাজার ৯৩৯ টাকার FDR এবং MOD রয়েছে।

এছাড়াও ৮ লক্ষ ৪৩ হাজার ১২৪ টাকার ন‍্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেট (NSC), ১ লক্ষ ৫০ হাজার ৯৫৭ টাকার জীবন বীমা পলিসি এবং ২০ হাজার টাকার ট‍্যাক্স-সেভিং ইনফ্রা বন্ড রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। ১.৭৫ কোটি টাকার অস্থাবর সম্পত্তিও রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

পিএমও কার্যালয় থেকে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, কোনো ব‍্যক্তিগত গাড়ি নেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। কোনো ঋণ নেই তাঁর নামে। গহনা হিসেবে তাঁর কাছে মোট চারটি সোনার আংটি রয়েছে, যার মোট ওজন প্রায় ৪৫ গ্রাম। গান্ধীনগরের সেক্টর-ওয়ান প্লটে ৩,৫৩১ স্কোয়ার ফিটের একটি বাড়ি রয়েছে তাঁর।

পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর সম্পত্তি বাড়লেও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সম্পত্তি কমেছে গত এক বছরে। ২০২০ সালের জুন মাস পর্যন্ত অমিত শাহের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ২৮.৬৩ কোটি টাকা। গত বছর যা ছিল ৩২.৩ কোটি টাকা। পিএমওর ঘোষণা অনুযায়ী উত্তরাধিকার সূত্রে ১৩.৫৬ কোটির সম্পত্তি পেয়েছেন তিনি। কিন্তু সারা দেশ যখন বেহাল অর্থনীতির চোটে বেসামাল, বেকারত্ব সর্বোচ্চ শিখরে,চতুর্দিকে অনিশ্চয়তা আর হাহাকার, সেই সময়ে দাঁড়িয়েও দেশের প্রধানমন্ত্রীর সম্পত্তি বৃদ্ধি নিঃসন্দেহে প্রশ্নের অবকাশ রেখেই যায়।

45