অনেকসময় সরকার বদলির নির্দেশ দিলেও প্রধান শিক্ষক এনওসি দিতে চাইতেন না। যার ফলে আটকে থাকত ট্রান্সফার। এবার থেকে সরকারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে গৃহীত হবে। প্রধান শিক্ষকের এনওসি-র দরকার পড়বে না।’ফলে উঠে গেল বদলির জন্য প্রধান শিক্ষকের নো অবজেকশন সার্টিফিকেট(এনওসি) প্রথা। পশ্চিমবঙ্গে স্কুল শিক্ষকদের বদলির নীতিমালা সরলীকরণের পর বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে করে একথা জানালেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক, তিন স্তরের শিক্ষকদের জন্যই নয়া বিধি প্রযোজ্য। গোটা প্রক্রিয়া হবে অনলাইনে হবে বলে শিক্ষামন্ত্রী জানান। নয়া বিধিতে ইতিমধ্যে ৬,০০০ প্রাথমিক শিক্ষকের বদলির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নির্দেশ কার্যকর করতে জেলা স্কুল পরিদর্শকদের তৎপর হতে বলা হয়েছে বলে পার্থ বাবুর দাবি।

এছাড়া এবার থেকে শিক্ষা দপ্তরের পোর্টালে রাজ্যের কোন জেলায় কত আসন খালি রয়েছে তা দেখা যাবে। সেই খালি পদ দেখে শিক্ষকরা বদলির জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের জন্য কোনও টাকা দিতে হবে না আবেদনকারী শিক্ষকদের। শুধু তাই নয়, মিউচুয়াল ট্রান্সফারের বিধিও সরল করা হয়েছে। মিউচুয়াল ট্রান্সফারে আর হিয়ারিংয়ের মুখোমুখি হতে হবে না শিক্ষকদের।

147