৫/১০/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ

একদিকে নতুন কৃষি বিল নিয়ে তোলপাড় দেশের রাজনীতি। কৃষক আন্দোলনে কাঁপছে গোটা দেশ। সেই আগুনের রেস গায়ে মেখেই আবারো উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ শহরের কর্ণজোড়ায় হল্লা বললো জেলার কৃষকরা। আজ দুপুরে কর্ণজোড়া কৃষি দপ্তরের সামনে কয়েক হাজার কৃষক বিক্ষোভ শামিল হন।লাগাতার বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে উত্তর দিনাজপুর শহর উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন অংশে। বন্যার জলে মাঠের ফসল চাপা পড়েছে। নষ্ট হয়েছে একরের পর একর জমির ফসল। এবার নিজেদের জমি থেকেই নষ্ট হওয়া ধানের গাছ তুলে নিয়ে এসে কৃষি দপ্তরের সামনে রোপন করলেন কৃষকেরা। সিপিএমের সংগঠন “সারা ভারত কৃষক সভার” পক্ষ থেকে হাজার হাজার হেক্টর জমির নষ্ট হওয়া ফসলের ক্ষতিপূরণের দাবিতে এই বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন কৃষকেরা। এই বিক্ষোভ কর্মসূচির নেতৃত্ব প্রদান করেন উত্তর দিনাজপুর জেলা বামফ্রন্টের আহ্বায়ক অপূর্ব পাল মহাশয়।

একটানা কদিনের প্রবল বৃষ্টিতে মহানন্দা, কুলিক, নাগর, সুধানি ও সুই নদীর জলে প্লাবিত হয়ে গিয়েছে উত্তর দিনাজপুর জেলার বিস্তীর্ণ এলাকা। হাজার হাজার হেক্টর জমির ধান জলের তলায় পচে গিয়ে নষ্ট হয়ে গিয়েছে। জেলাজুড়ে প্রায় ৫০ কোটি টাকার ধান নষ্ট হয়ে সমূহ ক্ষতির মুখে পড়েছেন জেলার চোপড়া থেকে ইটাহার সবকটি ব্লকের কৃষকেরা। অথচ রাজ্যের সরকার এই ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের কোনও সাহায্য সহযোগিতা করছেনা। কৃষক সভার নেতা তথা উত্তর দিনাজপুর জেলা বামফ্রন্টের আহ্বায়ক অপূর্ব পাল অভিযোগ করে বলেন, মাস্তানি গুন্ডামি করে গ্রামের পঞ্চায়েতগুলো দখল করেছ্র তৃনমূল কংগ্রেস। সেই দলের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা কৃষকদের স্বার্থে কোনও কাজ করছেনা। কিন্তু বিডিও বা কৃষি দপ্তরের আধিকারিকেরা ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ফসলের ক্ষতির পরিমান যাতে খতিয়ে দেখে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ক্ষতিপূরণ দেয় সেই দাবি নিয়ে সোমবার রায়গঞ্জ কর্নজোড়ায় জেলা কৃষি দপ্তর ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাল সিপিএম এর কৃষক সংগঠন সারা ভারত কৃষক সভা। অবিলম্বে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ক্ষতির পরিমান খতিয়ে দেখে তাদের সাহায্য সহযোগীতার দাবি জানায় সারা ভারত কৃষক সভা।

54