৩/১০/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ তৃনমূলের নতুন জেলা কমিটি ঘোষণার পর শনিবার দলের সমস্ত সাংগঠনিক পদের দ্বায়িত্ব ছাড়লেন তৃণমূলের বিধায়ক। দল যদি বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিতে বলে তাহলে বিধায়ক পদ থেকেও ইস্তফা দিতে প্রস্তুত রয়েছেন। কোচবিহার শহরের বিশ্বসিংহ রোডের তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানালেন কোচবিহার দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী। ইতিমধ্যেই গত ১৮ই সেপ্টেম্বর রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী কে সবটা বলেও এসেছিলেন তিনি। তারপরেও দল অসম্মানিত করে চলেছে” বলে এদিন অভিযোগ করেন মিহির গোস্বামী। তিনি বলেন ৫০ বছরের রাজনৈতিক জীবনে বারংবার আক্রান্ত হয়ে ছিলেন। দলের সাংগঠনিক পদ থেকে সরে এসে এভাবেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বিধায়ক বলেন জেলায় দলের সাংগঠনিক পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে আর্থিক লেনদেনের সম্ভাবনার কথা এদিনের সাংবাদিক সন্মেলনে উসকে দিয়েছেন বিধায়ক। এর পরেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বিধায়ক বলেন – ‘আমার বিধানসভা এলাকায় যারা একসময়ে দল বিরোধী কাজকর্ম করে পুরস্কার হিসেবে অঞ্চলের দলীয় পদ পেয়ে এসেছে। তারাই আজ ব্লক সংগঠনের পদ অলঙ্কার করছে।স্বজন পোষণ ও গোষ্ঠি রাজনীতির চুরান্ত জায়গায় পৌঁছে যাওয়ার পর সেই দলের কাছে আর নতুন করে চাওয়া বা পাওয়ার কিছু নেই। তাই কেবল সাংগঠনিক দায়িত্ব ত্যাগই নয় সেই সঙ্গে এও জানাচ্ছি আমার দলনেত্রীর নির্দেশ পেলে আমি বিধায়ক পদ থেকেও ইস্তফা দিতে প্রস্তুত আছি।

41