১২ বছর আগে খুন হয়ে যাওয়া মহিলা বেঁচে আছেন সশরীরে এবং সংসারও করছেন। এমনি ঘটনা ঘটেছে যোগী রাজ্য উওর প্রদেশের জলাউন জেলায়।২০০৮ সালে ওই মহিলার যখন ১৪ বছর বয়স ছিলো অর্থাৎ নাবালিকা ছিলেন, সেই সময় হঠাৎ করে একদিন বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যান তিনি। এরপর স্থানীয় কোতোয়ালি থানায় তার নামে নিখোঁজ ডায়েরি করে
যদিও কিশোরীর মা সেই সময় অভিযোগ করেছিলেন যে, পুলিশ ঠিকমতো তদন্ত করে বিষয়টি দেখছে না। আর এই ঘটনার দিন কয়েক পর কানপুরের ঘাটমপুর এলাকা থেকে এক অজ্ঞাত পরিচয়ের কিশোরীর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর সেটিই তাঁর মেয়ের মৃতদেহ বলে শনাক্ত করেন ওই কিশোরীর মা।গ্রামেরই ছয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে তাঁর মেয়েকে অপহরণ করে খুন করার অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। এমনকি স্থানীয় পুলিশ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে এই মামলা স্থানীয় পুলিশের থেকে সিবিসিআইডি-র কাছে স্থানান্তরিত হয়। অভিযুক্ত ছয় ব্যক্তিকে জেলে পাঠানো হয়। ট্রায়াল চলাকালীন মৃত্যু হয় একজনের। বাকিদের জামিনে মুক্তি দেওয়া হয় পরে। আর এই ঘটনার এত বছর পর হঠাত্‍ই এই মামলা উল্লেখযোগ্য মোড় নেয়।

42