ওয়েবডেস্ক, সেপ্টেম্বর, ২৮,২০২০:উত্তর দিনাজপুর জেলায় একের পর এক অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা যেন লেগেই আছে। রায়গঞ্জ, হেমতাবাদ, ইটাহারের পর এবার চোপড়ার চা বাগানের অদূরে শিক্ষকের দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। উত্তর দিনাজপুরে ডোবায় শিক্ষকের দেহ, খুন নাকি আত্মহত্যা এই প্রশ্নের উত্তরে পুলিশের একটাই বক্তব্য তদন্ত শুরু হয়েছে। এই রকম আরও কত ঘটনা ঘটলে তবেই টনক নড়বে প্রশাসনের প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে মানুষের মধ্যে। রবিবার বর্ষায় ভরা ডোবা থেকে উদ্ধার প্রাথমিক স্কুল শিক্ষকের মৃতদেহ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া থানার চা-ফ্যাক্টরি মোড় এলাকায়। মৃত ব্যক্তি পেশায় প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক। তিনি চোপড়া থানার কালাগছ এলাকার বাসিন্দা বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে চোপড়া থানার পুলিশ। দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, নর্থ দিনাজপুর চা ফ্যাক্টরি মোড়ে একটা বাড়ি আছে, বাড়ির পেছনে একটাডোবা আছে, বর্ষায় সেই ভরা ডোবার মধ্যে থেকে এদিন সকালে একটি মৃতদেহ ভাসতে দেখে গ্রামবাসীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তাঁরাই পুলিশকে ফোনে জানানো হলে দ্রুত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে। পুলিশ জানায় মৃত ব্যাক্তির নাম পলাশ অধিকারী। তিনি এলাকার প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক। তাঁর বাড়ি কালাগছ এলাকায়। মৃত্যুর ব্যাপারে কিছুই জানা যায়নি। অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ৷ খুন নাকি আত্মহত্যা তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারী পুলিশ আধিকারিক। মৃতের কাকা জানিয়েছেন শুক্রবার আসছি বলে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে আর বাড়ি ফেরেননি।

58