২৭/৯/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ

কিশোরীবেলা থেকে বাবার যৌন লালসার শিকার। যৌবনে সে অত্যাচারের মাত্রা বেড়েছে। কিন্তু, রুখে দাঁড়াতে পারেননি কখনও। আরও অত্যাচারের ভয়ে মুখ বুজে বছরের পর বছর সহ্য করেছেন বাবা নামক সম্পর্কের বর্বরতা। ভিতরে ভিতরে ঘৃণা জন্মেছে। দীর্ঘ পুঞ্জীভূত ঘৃণা জন্ম দিয়েছে বিদ্রোহের। যার বিস্ফোরণ ঘটেছে সম্প্রতি। সোজা থানায় গিয়ে বাবার বিরুদ্ধে ধর্ষণের নালিশ করেছেন মেয়ে।

ছোটবেলা থেকেই প্রতিনিয়ত ধর্ষণ করতেন নিজের বাবা। বিগত ১০ বছর ধরে বাবার যৌন নির্যাতন সহ্য করে অবশেষে শুক্রবার রাজস্থানের কোটার বছর তেইশের যুবতী স্থানীয় ভীমগঞ্জমণ্ডী থানায় লিখিত অভিযোগে জানিয়েছেন।
তাঁর বাবা ভারতীয় রেলে কর্মরত। তাঁকে বিগত ১০ বছর ধরে নিয়মিত ধর্ষণ করেছে। দিন যত এগিয়েছে অত্যাচারের মাত্রা ততই বেড়েছে। তাঁর বোনের ওপরেও শারীরিক নির্যাতন চালাত তার বাবা। তাঁর মাও বাবার হাতে নির্যাতনের শিকার। পুলিশকে তিনি জানান বাবার এই নির্যাতনের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে পারেননি কখনও। অত্যাচারের ভয়ে মুখ বুজে বছরের পর বছর সহ্য করেছেন বাবার এই নির্মম বর্বরতা। যুবতীর অভিযোগের ভিত্তিতে একাধিক ধারায় অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ। আটক করা হয়েছে নির্যাতিতার বাবাকে। ২৮ সেপ্টেম্বর ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে অভিযোগকারীর বক্তব্য রেকর্ড করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

যুবতীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ওই রেলকর্মীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ-সহ ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। নাবালিকা বয়স থেকে মেয়ের উপর যৌন নির্যাতন করায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পকসো আইনেও পৃথক মামলা দায়ের হয়েছে। শুক্রবার এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আনে রাজস্থান পুলিশ।

63