উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গগামী রাতের বাসে যাত্রী সেজে উঠে ভয়াবহ ডাকাতির ঘটনা ঘটলো কিছু দুষ্কৃতী। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরবঙ্গের ধুপগুড়ির কাছে। ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে কোচবিহার ও জলপাইগুড়ি জেলায়। সোমবার সন্ধ্যা ছটায় কোচবিহার থেকে বাসটি রওনা হয় মুর্শিদাবাদের করিমপুরের উদ্দেশ্যে। দূরপাল্লার এই বাসে ডাকাতির উদ্দেশ্যে কয়েকজন দুস্কৃতী যাত্রী বেশে বাসে উঠে ঘাপটি মেরে ছিল। সন্ধ্যা সাডে সাতটা  নাগাদ বাসটি ধূপগুড়ি রেল ওভারব্রিজ ছাড়িয়ে ঝুমুর সেতুর কাছে আসতেই স্বমূর্তি ধারণ করে অস্ত্র সমেত ঝাঁপিয়ে পড়ে যাত্রীদের উপর। এক দুস্কৃতী বাস চালককে বন্দুকের বাঁট দিয়ে আঘাত করে নিজেই বাস চালাতে শুরু করে। অভিযোগ যাত্রীদের কাছে থাকা নগদ টাকা মহিলাদের সোনার গহনা মোবাইল ফোন সব ছিনিয়ে নেয়। জলঢাকা সেতু পার করে ময়নাগুড়ি  থানা এলাকার  এক নির্জন স্থানে দুস্কৃতীরা নেমে যায়। এর পর বাস চালক আহত  অবস্থাতেই বাস চালিয়ে ময়নাগুড়ি  থানায় ঢুকিয়ে দেয়। এই ঘটনায় ৫ জন যাত্রী আহত হন। বাসের সমস্ত যাত্রীদের ময়নাগুড়ি হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা করা হয়। বাস যাত্রীদের রাতে ময়নাগুড়িতে থাকার ব্যবস্থা করা হয়। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গ্রামীণ দেনঢুপ শেরপা ধূপগুড়ি অফিস থেকে ছুটে যান। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। যাত্রীদের  অভিযোগ, তাদের মারধর করে নগদ টাকা, মোবাইল ফোন সহ সব জিনিস কেড়ে নেয় ডাকাতরা। জানা গেছে লুটের পরিমান আনুমানিক প্রায় দশ লক্ষ টাকা। যাত্রীদের মধ্যে কয়েকজন কাপড় ব্যবসায়ী  ছিলেন। তাঁরা নিয়মিত এই বাসেই যাতায়াত করতেন  মালদহ মুর্শিদাবাদ থেকে।মুলত তারাই ডাকাতদের লক্ষ ছিল বলে অনুমান।

42