বঙ্গোপসাগরের নিম্নচাপের জেরে আজ থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে বলে পূর্বাভাস রয়েছে আবহাওয়া দপ্তরের। বজ্রবিদ্যুৎ সহ প্রবল বৃষ্টির সতর্কতা রয়েছে কলকাতা-সহ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে। এর ফলে নদীর জলস্তর বাড়তে পারে। রয়েছে সমুদ্রে জলোচ্ছ্বাসের সম্ভাবনা। জেলা শাসকদের সতর্ক করল নবান্ন। পাশাপাশি কলকাতা পৌরসভাকে বিশেষভাবে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপটি শক্তিশালী হতেই বিদায়ী মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। সেই আশঙ্কার জেরেই জারি রয়েছে হলুদ সতর্কতা। মৎস্যজীবীদে সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। যারা গভীর সমুদ্র রয়েছেন তাদের ফিরে আসার অনুরোধ করা হয়েছে। দিল্লির মৌসম ভবন আগামী দুদিন আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ, অন্ধ্র উপকূল ,তেলেঙ্গানা ও কর্ণাটক কেরালাতে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে।

 ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে নদীয়া, পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, পূর্ব বর্ধমান এবং মুর্শিদাবাদে। কলকাতা সহ বাকি জেলাগুলিতে আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। বাকি সব জেলায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সোমবার ভারী বৃষ্টির আশঙ্কা থাকছে বীরভূম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে। জারি করা হয়েছে হলুদ সতর্কতা। মঙ্গলবার  দক্ষিণবঙ্গের আট জেলা, বীরভূম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রামে ভারী বৃষ্টির আশঙ্কা।। দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আলিপুর হাওয়া অফিস। এদিন সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে তৈরি থাকার আর্জি জানিয়েছে নবান্ন।

এই দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার জেরে বাতিল হয়ে গিয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির উত্তরবঙ্গ সফর এবং প্রশাসনিক সভা। জানা গেছে আগামী ২৮ তারিখ তিনি উত্তরবঙ্গ সফরে আসবেন এবং ২৯ ও ৩০ তারিখ তিনি প্রশাসনিক সভা করবেন উত্তরবঙ্গে।

27