আবহাওয়ার মতিগতি ভালো নয়। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাসও জানাচ্ছে, উত্তরবঙ্গে এক নাগাড়ে বৃষ্টি চলতে পারে বেশ কয়েকদিন। আর সেই কারণেই উত্তরবঙ্গ সফর বাতিল করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার, ২১ অগস্ট তাঁর উত্তরবঙ্গ সফরে যাওয়ার কথা থাকলেও তা বাতিল করে দিলেন তিনি। নবান্ন সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রী ২৮ সেপ্টেম্বর যেতে পারেন শিলিগুড়ি। ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর প্রশাসনিক বৈঠক করবেন তিনি। এরপর ১ অক্টোবর কলকাতা ফিরবেন।

বিধানসভা ভোটের দামামা বেজে গিয়েছে। তবে, এর মধ্যেই রয়েছে করোনাভাইরাসের আতঙ্ক। তবু সেই বিষয়টিকে পাত্তা না দিয়ে আবার দীর্ঘ ৬ মাস পর উত্তরবঙ্গে সফরে যাওয়ার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছিল, আগামী ২১ সেপ্টেম্বর উত্তরবঙ্গে গিয়ে সেখানে পাঁচটি জেলার প্রশাসনিক বৈঠকে অংশ নেবেন তিনি। উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতিতে একাধিক বার দলীয় ও প্রশাসনিক বৈঠক ভার্চুয়ালিই সেরেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু লোকসভায় পিছিয়ে পড়া উত্তরবঙ্গ নিয়ে আর ঝুঁকি নিতে নারাজ তৃণমূল নেত্রী সরেজমিনে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে হাজির হতে চেয়েছিলেন উত্তরবঙ্গে। এবার সেই সফরই পিছিয়ে দিতে হল।

আগের সফরসূচি অনুযায়ী, ২১ সেপ্টেম্বর কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি পৌঁছে ২২ ও ২৩ সেপ্টেম্বর পাঁচটি জেলার প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করার কথা ছিলো মুখ্যমন্ত্রীর। ২২ সেপ্টেম্বর আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ির প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দেওয়ার কথা ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এরপর বৈঠক করার কথা ছিল কোচবিহার, দার্জিলিং ও কালিম্পংয়ের প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে। তবে জেলার জেলায় গিয়ে নয়, বরং শিলিগুড়ির ‘উত্তরকন্যা’য় বসেই সমস্ত বৈঠকগুলি করার কথা ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগের সফরসূচি অনুযায়ী ২৪ সেপ্টেম্বর মুখ্যমন্ত্রীর কলকাতা ফেরার কথা ছিল।

26