দিল্লি পুলিশ শনিবার সিপিএমের জেনারেল সেক্রেটারি সহ আরো কয়েকজন কে দিল্লি দাঙ্গার ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে চার্জশিটে যুক্ত করেছে সংবাদমাধ্যমের এই প্রতিবেদন কে অস্বীকার করা হল দিল্লি পুলিশের তরফ থেকেই। সীতারাম ইয়েচুরি, স্বরাজ অভিযান নেতা যোগেন্দ্র যাদব, অর্থনীতিবিদ জয়তি ঘোষ, দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও কর্মী অপুরবানন্দ এবং ডকুমেন্টারি চলচ্চিত্র নির্মাতা রাহুল রায় সহ-ষড়যন্ত্রকারী হিসাবে একটি পরিপূরক চার্জশিটে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে সংবাদ পত্রে এখবর সামনে আসতেই দেশ জুড়ে শোরগোল পরে যায়। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের তরফ থেকে তীব্র প্রতিবাদ করা হয়। সমালোচনার ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়াতেও। সিপিআইএম এর তরফ থেকে সোমবার দেশজুড়ে প্রতিবাদের কর্মসূচিও নেওয়া হয়েছে।যদিও শনিবার এই খবরের সত্যতা স্বীকার করতে চায় নি দিল্লি পুলিশ।

এর আগে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক ইয়েচুরি দিল্লি পুলিশকে তীব্র নিন্দা জানিয়েছিলেন যে, এর “অবৈধ, অবৈধ পদক্ষেপ” বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের রাজনীতির একটি “প্রত্যক্ষ পরিণতি”। এই বিষয়ে পিটিআইয়ের টুইটের কথা উল্লেখ করে দিল্লি পুলিশের এক মুখপাত্র বলেছেন, “জাফরাবাদ দাঙ্গা সম্পর্কিত একটি মামলায়… অনলাইন নিউজ এজেন্সির একটি রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে যে নামগুলি অভিযুক্তের একজনের দেওয়া বিবৃতির অংশ। সিএএ বিরোধী বিক্ষোভগুলি সংগঠিত ও সম্বোধনের বিষয়ে

অভিযুক্ত ব্যক্তির বিবৃতি সত্যই রেকর্ড করা হয়েছে, ”। “তবে, কেবল কোনও অভিযুক্তের বিবৃতির ভিত্তিতে কোনও ব্যক্তিকে অভিযুক্ত হিসাবে সাজানো হয় না। এটি কেবলমাত্র আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের পর্যাপ্ত প্রমাণের অস্তিত্বের ভিত্তিতে সংরক্ষিত রাখা হয়েছে। বিষয়টি বর্তমানে বিচারাধীন। যদিও বিরোধীরা এটা এক রকমের ভয় দেখানোর রাজনীতি মনে করছে।

13