পুকুর থেকে এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল কালিয়াগঞ্জ থানার মহেশপুর গ্রামে। মৃত যুবকের নাম মানব রায়(৩০)। সোমবার সকালে ওই যুবকের মৃতদেহ বাড়ির পাশেই একটি পুকুরে ভাসতে দেখে স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর পেয়ে কালিয়াগঞ্জ থানার পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। বিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

মৃতের কাকা মনোজিৎ রায় বলেন, ‘‘ রবিবার রাত দশটার পর থেকে ভাইপোকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। রাতভর খোঁজাখুঁজি করেও ভাইপোর হদিস পাইনি। সোমবার সকালে গ্রামের লোকেরা বাড়ির কাছেই একটি পুকুরে ভাইপোকে ভেসেথাকতে দেখে আমাদের খবর দেয়। আমরা পুকুরে গিয়ে দেখি ভাইপো ভেসে রয়েছে। পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করার পাশাপাশি তদন্ত শুরু করেছে।’’

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই যুবক নেশায় আসক্ত ছিল। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান নেশা করে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তা সংলগ্ন পুকুরে পড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হয়েছে।

মৃত যুবকের স্ত্রীর রত্না রায় বলেন, “আমার এক ছেলে এক মেয়ে দু’জনেই নাবালক। কীভাবে স্বামীর মৃত্যু হল তা বুঝে উঠতে পারছিনা।”

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত যুবকের বাবাও নেশায় আসক্ত ছিল। বছর খানেক আগে নেশা করতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

24