১৪/৮/২০২০,ওয়েবডেস্কঃ করোণা ভাইরাসের কারণে প্রায় পাঁচ মাস ধরে বন্ধ ছিল বৈষ্ণোদেবী যাত্রা অবশেষে জম্মু ও কাশ্মীর প্রশাসন জানিয়ে দিলো আর দুদিন পর থেকেই অর্থাত অর্থাত ১৬ ই আগস্ট থেকে উঠে যাচ্ছে নিষেধাজ্ঞা পুনরায় শুরু হচ্ছে বৈষ্ণোদেবী যাত্রা। তবে এক্ষেত্রে জারি করা হয়েছে কিছু গাইডলাইন একদিনে সর্বোচ্চ ৫০০জন তীর্থযাত্রী কে ঢুকতে দেওয়া হবে জম্মু-কাশ্মীরের বাইরে থেকে এলে এজন্য অনলাইনে আগে থেকেই শুরু হয়েছে রেজিস্ট্রেশন কোন কাউন্টারে এসে কোনরকম ভিড় করা যাবে না অন্যদিকে স্ত্রী মাতা বৈষ্ণোদেবী মন্দির বোর্ডের তরফে জানানো হয়েছে, তারা সবরকমের বিধি, নিয়ম মেনেই ব্যবস্থা করছে যাত্রার। মন্দির চত্বর নিয়মিত স্যানিটাইজ় করা হচ্ছে। কোভিড বিধির সবটুকু মেনে তবেই পুণ্যার্থীদের জন্য খোলা হচ্ছে বৈষ্ণোদেবীর পথ। ঠিক করা হয়েছে নির্দিষ্ট গাইডলাইন।এই সময়ে তীর্থযাত্রা শুরু করা উচিত হল কিনা সে নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে ইতিমধ্যেই। স্বাভাবিক ভাবেই উদ্বেগ ঘনিয়েছে, সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করা এবং পরিচ্ছন্নতা নিয়ে। এ বিষয়ে মন্দির ট্রাস্ট জানিয়েছে, তারা সব রকম ব্যবস্থা করে তবেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।তবে এই সিদ্ধান্ত স্থানীয় বাসিন্দাদেরও। কারণ মন্দির ও তাকে ঘিরে যে পর্যটন, তা তে অনেকেরই আয়ের উৎস। তাঁরা চাইছেন, কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে পুণ্যার্থীরা আসুক আরও বেশি সংখ্যায়। তা যদি নাও হয়, তবু বাইরে থেকে যে ৫০০ জনকে দৈনিক অনুমোদিত করা হবে, তার ওপর ভিত্তি করেই আগের মতো দোকানপাটের পসারা সাজানোর তোড়জোড় শুরু করেছে তারা।

বৈষ্ণো দেবী মন্দিরজম্মুর মাতা বৈষ্ণো দেবী মন্দিরটি সারা দেশে জনপ্রিয়। সারা বছর হাজার হাজার মানুষ এখানে আসেন। অনুমান, বছরে প্রায় ৮০ লক্ষ লোক বৈষ্ণবীদেবীর কাছে যান। ‘ট্যুর মাই ইন্ডিয়া’র তথ্য অনুসারে, ভক্তদের অনুদান থেকে বছরে ৫০০ কোটি টাকা আসে মন্দিরে।

এ বছর মার্চ মাসের ১৮ তারিখে ঘোষণা করা হয়েছিল, করোনার জেরে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত বৈষ্ণো দেবীর যাত্রা বন্ধ থাকবে। এরপর পরিস্থিতির উপর বিচার করে কবে ফের যাত্রা শুরু করা হবে, তা জানিয়ে দেওয়া হবে। এই মেয়াদ ক্রমেই বাড়তে থাকে অগস্ট পর্যন্ত। শেষমেশ উঠল নিষেধাজ্ঞা।


10