কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা ও বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দাওয়ার দাবিতে এবার সরব হল খোদ কাশ্মীরি পন্ডিতদের একাংশ। সোমবার ‘রিকনসিলিয়েশন, রিলিফ অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন’ নামক অভিবাসী কাশ্মীরি পণ্ডিতদের এক সংগঠনের পক্ষে চেয়ারম্যান সতীশ মহালদার এক বিবৃতিতে দেশের প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং সাংসদদের কাছে এই দাবি জানান।

সংগঠনের পক্ষ থেকে সতীশ মহালদার বলেন, আমরা দাবি করছি অবিলম্বে জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যের তকমা এবং বিশেষ অঞ্চলের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়া হোক।

তিনি আরও বলেন – ভারতীয় সংবিধান দেশের প্রতিটি নাগরিক, প্রতিটি সম্প্রদায়, প্রতিটি গোষ্ঠী এবং প্রতিটি অঞ্চলকে সম সামাজিক এবং রাজনৈতিক অধিকার দিয়েছে। এই সম অধিকার প্রতিটি নাগরিকের ধর্ম, জাতি, অঞ্চল সহ যেকোনো সামাজিক এবং রাজনৈতিক অধিকার নিশ্চিত করে। এর আগে কখনও কোনো রাজ্যকে এভাবে নীচে নামানো হয়নি। গণতন্ত্রে এটা হতে পারেনা। একজন ব্যক্তি কখনই এক রাজনৈতিক বিষয়ে সামরিক মীমাংসা চাইবেন না এবং নিজের ভাইয়ের সঙ্গে লড়াই করবেন না।

তাঁর আবেদনে মহালদার আরও বলেন – বিষয়টা এরকম নয় যে শুধুমাত্র জম্মু ও কাশ্মীরেরই বিশেষ অঞ্চলের মর্যাদা ছিলো। অরুণাচল প্রদেশ, আসাম, হিমাচল প্রদেশ, মণিপুর, মেঘালয়, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড, সিকিম, ত্রিপুরা এবং উত্তরাখন্ডেও এই বিশেষ মর্যাদা আছে। এই সমস্ত রাজ্যে ধারা ৩৭১, ৩৭১-এ থেকে ৩৭১-এইচ পর্যন্ত বলবত আছে। তাই জম্মু ও কাশ্মীরকেও বিশেষ অঞ্চলের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়া হোক।

তাঁর আরও দাবী, দেশের পিছিয়ে পড়া অংশ হিসেবে এই অঞ্চলের সংস্কৃতি এবং আর্থিক ভারসাম্য রক্ষায়, সংখ্যালঘুদের স্বার্থে জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যের তকমা এবং বিশেষ অঞ্চলের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়া হোক।

10