২৪/৭/২০২০,ওয়েবডেস্কঃদেশের ৪০শতাংশ স্কুলই শ্রেণীকক্ষ বিহীন। খেলারমাঠ ও শৌচাগারের ব্যবস্থার হালও তথৈবচ। না কোন অনুমান নয়, ন্যাশনাল কমিশন ফর প্রোটেকশন অফ চাইল্ড রাইটসের (এনসিপিসিআর)-র সমীক্ষায় উঠে আসা তথ্য অনুযায়ী
দেশের ২২% স্কুল চলছে পুরোনো ভেঙে যাওয়া বাড়িতেই।এমনই চাঞ্চল্যকর এই তথ্য উঠে এসেছে এই সমীক্ষায়।

সেফ এন্ড সিকিওর স্কুল এনভায়রনমেন্ট শীর্ষক এই সমীক্ষা চালানো হয় দেশের প্রায় ১২টি রাজ্যের প্রায় ২৬,০৭১টি স্কুলে।

সমীক্ষায় দেখা গেছে ২২শতাংশ স্কুলই চলছে পুরোনো ভাঙা বাড়িতে। প্রায় ৩১শতাংশ স্কুল বাড়িতে ফাটল দেখা দিয়েছে। ১৯শতাংশ স্কুল বাড়ি রয়েছে রেল লাইনের পাশে। মাত্র ১শতাংশ স্কুল বাড়ির সামনে রয়েছে স্পিড ব্রেকার ও জেব্রা ক্রসিং। ৭৪শতাংশ স্কুলে রয়েছে শৌচালয় বাকি ২৬শতাংশ স্কুলে শিশুদের বাইরে থেকে জল আনতে হয়। ৪৯শতাংশ স্কুলে রয়েছে বিশেষ ভাবে সক্ষমদের জন্য শৌচাগার। রাজ্যগুলির মধ্যে ৮১.১শতাংশ স্কুলে মিডডে মিল দেওয়া হয় যার মধ্যে ৫৬শতাংশ পড়ুয়ারা ওই মিল খেয়ে সন্তুষ্ট। ৪০শতাংশ স্কুলে রয়েছে ক্লাসঘর, খেলার মাঠ, শৌচাগার ও হুইলচেয়ার বহনের ক্ষমতা। এই তথ্য যথেষ্ট উদ্বেগজনক বলে মন্তব্য এনসিপিসিআর’র।

12