চোপড়ায় মাম্পি সিংহের মৃত দেহ যেখানে পাওয়া গিয়েছিল তার অনতিদূরে নয়ানজুলি থেকে উদ্ধার হল এক যুবকের দেহ। স্থানীয়রা দাবি করেছে যে যুবকের বিরুদ্ধে মাম্পি কে ধর্ষণ ও খুনের অভিযোগ এনেছিল তার বাড়ির লোক ঐ দেহটি সেই যুবকের। যদিও পুলিশ এখনও যুবকের পরিচয় নিয়ে কিছু জানায় নি।

গতকাল সদ্য মাধ্যমিক পাশ করা মাম্পি সিংহ নামে একটি যুবতীর দেহ উদ্ধার হয় বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে। বাড়ির লোক দাবি করে যে মাম্পি কে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। এই ঘটনায় একজন যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে তার গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে আন্দোলনে নামে স্থানীয় বেশ কিছু মানুষ। আন্দোলনকারীরা বেশির ভাগ বিজেপি সমর্থক বলে জানা গিয়েছে। মৃতার ভাই অভিযোগ করে যে সে বিজেপি কর্মী বলেই তার বোনের উপর আক্রমণ নামিয়ে এনেছে তৃণমূল সমর্থক ঐ যুবক। বিজেপির পক্ষ থেকে ঘটনার সাম্প্রদায়িক করণের চেষ্টা হয় বলে অভিযোগ করেছেন অনেকে। আন্দোলনকারীরা ক্রমশ হিংসাত্বক হয়ে ওঠে, একটি সরকারি বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। পুলিশের সাথে খন্ড যুদ্ধ বেঁধে যায়।

অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের পক্ষ থেকে এক ফেসবুক পোস্টে জানানো হয় মৃতার শরীরে বাইরে বা ভেতরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায় নি। তবে তার বিষক্রিয়াতেই মৃত্যু হয়েছে। পোস্ট মর্টেমের পুর্ণাঙ্গ রিপোর্ট এখনও আসেনি। ঐ ফেসবুক পোস্টে জানানো হয়েছে যে ধর্ষণ ও খুনের দাবি করা হলেও মৃতার বাড়ির লোক পুলিশের কাছে এখনও কোনও অভিযোগ দায়ের করে নি। পুলিশ নিজে থেকেই তদন্ত করছে।

আজ সম্ভাব্য অভিযুক্তের দেহ একটি নয়ানজুলি তে ভেসে ওঠার পর পুলিশ তা উদ্ধার করে পোস্ট মর্টেমের জন্য পাঠিয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে একজন ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে ঐ যুবকের দেহের পোস্ট মর্টেম করা হবে। পুলিশ জানিয়েছে দুটি মৃত্যুর রহস্যই পুলিশ তদন্ত করবে। এবং যদি খুন হয়ে থাকে তবে দুটি ক্ষেত্রেই দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

41