করোনা পরিস্থিতিতে দিশেহারা সারা বিশ্ব। এর মাঝেও থেমে নেই দুর্বৃত্তরা। ১৪ বছরের এক স্কুল পড়ুয়াকে ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ দিল্লিতে। যদিও এঘটনায় এখনও থানায় কোনও অভিযোগ করা হয়নি।
পুলিশ জানিয়েছে, নয়ডায় একটি বোর্ডিং স্কুল থেকে এক ১৪ বছরের কিশোরীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে, তার পরিবারের অভিযোগ ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে তাঁকে।
পুলিশ জানিয়েছে, ৩ জুলাই সেক্টর ১১৫ তে এই ঘটনা ঘটেছে। মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে বিচার চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা হলে, এই অভিজোগে রীতিমতো আলোড়ন পরে যায়। এরপরেই নক্ক্যারজনক ঘটনা প্রকাশ্যে আসে।
উল্লেখ্য, এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোনও প্রকার অভিযোগ জানানো হয়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যদি পরিবারের লোকেরা তাঁদের দাবি সম্পর্কে কোনও প্রমাণ নিয়ে আসে, বা খাতায় কলমে অভিযোগ দায়ের করে তবে পুলিশ তদন্ত করতে প্রস্তুত।
তবে পুলিশি অভিযোগ না করলেও হরিয়ানার মহেন্দ্রগড় জেলায় বসবাসকারী এই পরিবার তাদের মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টরকে চিঠি দিয়েছে। তাতে তাঁরা আবেদন করেছেন, যাতে ওই স্কুলের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

মৃতার পরিবারের তরফে জানা গিয়েছে, তাঁদের তিন সন্তান ওই স্কুলে পড়াশোনা করছে। এরমধ্যে দুটি মেয়ে একই ক্যাম্পাসে ও আরেক ছেলে অন্য ক্যাম্পাসে পরে। মৃতার মা জানিয়েছে, তাঁদের স্কুল থেকে হঠাৎ ফোন করে সেখানে যেতে বলে, তাঁরা সেখানে গেলে মেয়ের মৃতদেহ দেখানো হয়।
মেয়েটির মা একটি ভিডিওতে জানিয়েছেন, “আমার মেয়েকে স্কুলে খুন করা হয়েছে। পাশাপাশি সেখানকার লোকেরা তার মেয়েকে ধর্ষণও করেছে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি।

17