প্রতিদিনই প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। মানুষ এ সব বুঝে গিয়েছেন।’

দিলীপের এই কটাক্ষের প্রশ্নেই পালটা সুর চড়িয়েছেন বামনেতা মহম্মদ সেলিম। দিলীপ ঘোষের পরিচয় নিয়ে 

দিলীপ ঘোষ? কে দিলীপ ঘোষ? যিনি গরুর দুধে সোনা পান?’ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের প্রতি তীব্র কটাক্ষ করলেন সিপিআইএম পলিটব্যুরো সদস্য মহঃ সেলিম। রবিবার ইকো পার্কে প্রাতঃভ্রমণ সেরে ফেরার পথে সিপিএমে যুব সম্প্রদায়ের ভিড় প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি কটাক্ষের সুরে বলেছিলেন, ‘যুব-কিশোরদের এনেও সিপিএমের কোনও লাভই হওয়ার নয়। ওই দলকে ত্যাগ করেছেন বাংলার মানুষ। পশ্চিমবঙ্গে হিংসার জন্মদাতা সিপিএম। বাংলার মানুষ ওদের বুঝে গেছে”

তারই পাল্টা হিসেবে এদিন সিপিএম নেতা মহঃ সেলিম এবার দিলীপ ঘোষের প্রতি তীব্র কটাক্ষ ছুড়ে দিলেন। উল্লেখ্য, ভারতীয় গোরুর দুধে সোনা পাওয়া যায় মন্তব্য করে হাসির খোরাক জুগিয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। দিলীপ ঘোষের সেই মন্তব্য নিয়ে এখনও সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল, মিম তৈরি হয়ে থাকে। এদিন সেই প্রসঙ্গই টেনে কটাক্ষ করেছেন সেলিম। অপর সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর কথায়, ‘দিলীপ ঘোষের কথার কি কোনও গ্রহণযোগ্যতা আছে? ওনার কথাকে কেউ গুরুত্ব দেয় না।’

করোনা মহামারী ও ঘূর্ণিঝড় উম্পুনের এই সময়ে দলের কর্মীরা কতটা ত্রাণের কাজ চালিয়েছেন, ভিন রাজ্য থেকে ফেরা শ্রমিকদের পাশে কতটা দাঁড়াতে পেরেছেন এবং কংগ্রেসকে নিয়ে যৌথ আন্দোলন কতটা এগিয়েছে, এই সমস্ত বিষয়েই আলোচনা হয় সিপিএম রাজ্য কমিটির সাম্প্রতিক ভার্চুয়াল বৈঠকে। সেখানেই সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র দলকে নির্দেশ দিয়ে বলেন, ‘লকডাউনের মধ্যে ও ঘূর্ণিঝড়ের পরে ত্রাণের কাজে প্রচুর নতুন মুখেরা এসেছেন। যাদের অনেকেই দলের সঙ্গে সরাসরি জড়িত নয়। কিন্তু মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এই জরুরি সময় তাঁরা এগিয়ে এসেছে। দ্রুত এই নবীন প্রজন্মকে সংগঠনে আনতে হবে এবং তাঁদের বিভিন্ন কাজে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিতে হবে।’

33