মোদী জমানায় আবার। আবার ব্যাঙ্ক জালিয়াতি। আবার সামনে এল ৩,৬৮৮কোটি টাকার ব্যাঙ্ক জালিয়াতির খবর। আবারও নাম জড়াল পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের । বর্তমানে দেউলিয়া হতে বসা ডিএইচএফএল হাউজিং সংস্থাকে ৩,৬৮৮.৫৮ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছিল রাষ্ট্রায়ত্ত এই ব্যাংক। গত বৃহস্পতিবার ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংকে দাখিল নথিতে পিএনবি-র তরফে জানানো হয়েছে, যে এই ঋণ ঘিরে জালিয়াতির শিকার হয়েছে তারা। এইচডিএফএল-এর একটি নন-পারফর্মিং অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে কয়েক হাজার কোটি টাকার এই দুর্নীতি হয়েছে। গত তিন বছরের মধ্যে পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকে এই নিয়ে চতুর্থ বার কেলেঙ্কারির ঘটনা সামনে এল। দেওলিয়া ঘোষণা হতে যাওয়া এই নন-ব্যাংকিং ফাইন্যান্সিয়াল কোম্পানিকে ঋণ দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠছে?

২০১৮ সালে বিলিয়নিয়র হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদীর ১১,৩০০ কোটি টাকার দুর্নীতির ধাক্কা রাষ্ট্রায়ত্ত পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংককে নাড়িয়ে দিয়েছিল। এই ঘটনায় দেশজুড়ে হইহই পড়ে যায়।দেশের অন্যতম বৃহৎ নন-ব্যাংকিং ফাইনান্সিয়াল কোম্পানি ডিএইচএফএল -এর ঋণের পরিমাণ প্রায় ১ লক্ষ কোটি টাকার দোরগোড়ায় এসে দাঁড়িয়েছে। ফলে ঋণদাতাদের বকেয়া মিটিয়ে দিতে ব্যর্থ তারা।ভারতীয় স্টেট ব্যাংক এবং ইউনিয়ন ব্যাংক-এর মতো রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানগুলি দেওয়ান হাউজিং ফাইন্যান্সের অ্যাকাউন্ট নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

26