১০/৭/২০২০,ওয়েবডেস্কঃবৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যের কন্টেনমেন্ট জোনগুলিতে লকডাউন শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ সরকার জেলা ভিত্তিক যে কন্টেনমেন্ট জোনের তালিকা প্রকাশ করেছে।যদিও তাতে কোচবিহার, পশ্চিম বর্ধমান এবং জঙ্গলমহলের ঝাড়গ্রামের কোনো নাম নেই।ফলে এদিনের তালিকা অনুযায়ী এই তিন জেলার কোথাও লকডাউন কার্যকর হয়নি।

তবে তিন জেলাতেই করোনা অ্যাকটিভ রোগী রয়েছেন। বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কোচবিহারের কোভিড অ্যাকটিভ সংখ্যা ৭, পশ্চিম বর্ধমানে ৩২ এবং ঝাড়গ্রামে ৬। ঝাড়গ্রাম মাঝে করোনা শূন্য হয়ে গিয়েছিল। টানা কয়েক সপ্তাহ জঙ্গলমহলের এই জেলায় নতুন সংক্রামিতের হদিশ মেলেনি। কিন্তু কয়েক দিন আগে ফের পজিটিভ রোগীর সন্ধান মেলে। কোচবিহারেও সংক্রমণের মাত্রা কমেছে। শুরু থেকে পশ্চিম বর্ধমানেও তেমন হুহু করে সংক্রমণ ছড়ায়নি। জেলা প্রশাসনগুলির বক্তব্য, এখন যে অ্যাকটিভ রোগীরা রয়েছেন, তাঁরা বিভিন্ন এলাকার। এক পাড়া বা একটি নির্দিষ্ট লেনে অনেকে সংক্রমিত রয়েছেন এমন ঘটনা নেই। সে কারণেই কন্টেনমেন্ট জোন করা হয়নি।

মঙ্গলবার সন্ধেবেলা স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশিকা জারি করে বলেছিলেন, আজ ৯ জুলাই বিকেল পাঁচটা থেকে লকডাউন কার্যকর হবে। এবং বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আপাতত সাতদিন লকডাউন হবে। তারপর সংক্রমণ বাড়া-কমা দেখে লকডাউন তোলা হবে।”

10