প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা মতো দেশে শুরু হয়েছে আনলক পর্ব। কিন্তু লকডাউনে খানিক শিথিলতর পথ ধরেই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। পরিস্থিতি ক্রমেই হচ্ছে উদ্বেগজনক। আর এর জেরেই আজ নবান্ন থেকে সম্পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করা হলো উত্তর ২৪ পরগনা জেলা জুড়ে।
জানা গিয়েছে, নবান্নের তরফে লকডাউন সম্পর্কিত নির্দেশিকা জেলাশাসকের দপ্তরে পাঠানো হয়েছে ইতিমধ্যেই। নির্দেশিকা অনুযায়ী, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য যেমন মুদি, সবজি, মাছ, মাংস, দুধ, ডিম, ফল, ওষুধের এসব ক্ষেত্রে ছাড় মিলবে। হোম ডেলিভারির ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে। তবে দোকান খোলার নির্দিষ্ট সময় বেধে দেওয়া হয়েছে।এছাড়া এই জেলায় লকডাউনে ফের বন্ধ হচ্ছে গণপরিবহণও। শুধু জরুরি পরিষেবার ক্ষেত্রে ছাড় মিলবে। কারখানা, অফিস চালু রাখার ক্ষেত্রে কর্মী সংখ্যা ২০ শতাংশ বেঁধে দেওয়া হয়েছে। ব্যাংক, এটিএম, পোস্টাল, ফায়ার, পেট্রোল পাম্প, সিভিল সার্ভিস এসবকে ছাড়ের আওতায় রাখা হয়েছে। বিমান চালানোর ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ধর্মীয়স্থান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি মাস্ক ব্যবহার ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।
পরিস্থিতি জটিল আরো কয়েকটি জেলারও। যেমন মালদা জেলায়ও ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ন বৈঠক শুরু হয়েছে আবারও লকডাউন ঘোষণা করতে। উত্তর দিনাজপুরের পরিস্থিতিও আশংকাজনক। ইতিমধ্যেই রায়গঞ্জ শহরের অন্যতম বড় মোহনবাটি বাজার বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ব্যবসায়ী সংগঠন। পরপর দুই ব্যবসায়ীর আক্রান্ত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতেই এই সিদ্ধান্ত। সব মিলিয়ে আবারও উদ্বেগ আর আতংক জাঁকিয়ে বসতে শুরু করেছে রাজয়বাসীর মনে।

19