ফাঁসির সাজা বর্ধমানের সাইকেল চেন কিলারের

ওয়েব ডেস্ক জুলাই ৭,২০২০ : অপরাধ বিজ্ঞানের পরিভাষায় ‘মোডাস অপারেন্ডি’ একই। প্রতিটি খুন করা হয়েছে একইভাবে‌। আততায়ী এসে দরজায় কড়া নাড়া দিয়েছে। বলেছে মিটার দেখবে। মিটার দেখার অছিলায় গলায় সাইকেলের চেইন দিয়ে হত্যা করেছে বাড়িতে  একলা থাকা মহিলাকে । ঘটনার বীভৎসতা বাড়িয়েছে আরো একটি তথ্য। খুনের পরে ‘নেক্রমান্সি’ বা মৃতদেহের সাথে যৌন সঙ্গম।

কয়েক বছর আগে এই রকমই সিরিয়াল কিলার আতঙ্কিত করে রেখেছিল গোটা পূর্ব বর্ধমান ও লাগিয়া জেলা গুলিকে। 

মামলায় দোষী সাব্যস্ত  কামরুজ্জামান সরকারকে ফাঁসির সাজা দিল আদালত। গত বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ২রা জুলাই তাকে দোষী সাব্যস্ত করেন আদালত। এই মামলায় ৩৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে।

প্রায় বছরভর চলেছিল এই নারকীয় হত্যালীলা। হত্যাকারী শিকার হয়েছিলেন পাঁচ মহিলা। সিঙ্গেরকোন গ্রামের এক কিশোরী তার নির্যাতনের শিকার হয়। তবে এক্ষেত্রে খুনের পর নয় আগেই কিশোরীর উপর যৌন নির্যাতন চালায় অভিযুক্ত। সেই মুহূর্তে বেঁচে যায় ওই কিশোরী। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সে মারা যায়।

এরপর থেকেই বেড়ে যায় পুলিশি তৎপরতা। জায়গায় জায়গায় শুরু হয় নাকা চেকিং। সেই সময়ে কালনার কাকুড়িয়ার রাস্তা থেকে সন্দেহ হয় কামরুজ্জামান সরকারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ । তাকে চেপে ধরতে এসে কিশোরীকে খুনের কথা স্বীকার করে নেয় বলে জানায় তদন্তকারীরা।

212