৬ ই জুলাই ২০২০,ওয়েবডেস্কঃ২১ ! হ্যাঁ আমাদের জেলায় গতকাল একদিনে কোরোনা আক্রান্তের সংখ্যা। হু হু করে বাড়ছে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা কয়েকদিন আগে জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের দপ্তরের এক অফিসার এর কোরোনা আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে।
গতকাল তার লালারাসের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। রবিবার রাত আটটা নাগাদ স্বাস্থ্য দপ্তরের ওই অফিসারকে রায়গঞ্জের কর্ণজোড়া ফাঁড়ির অন্তর্গত ছটপাড়ুয়া এলাকার কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্বাস্থ্য দপ্তরের ওই অফিসার ১৩ নম্বর কমলাবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়েতের বোগ্রাম এলাকায় ভাড়া থাকতেন। তার বাড়ি ইসলামপুর মহকুমার পাঞ্জিপারা এলাকায়।

এদিকে রায়গঞ্জ পুরসভার পানীয় জলের পাইপ লাইনের কাজ করতে এসেছিল মুর্শিদাবাদ থেকে ১৩ জন তাদের মধ্যে একজনের লালা রসের নমুনায় করোনা পজিটিভের রিপোর্ট আসতেই তড়িঘড়ি ওই কর্মীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চিকিৎসকদের বক্তব্য, রায়গঞ্জ গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে গিয়েছে।

জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান বলেন, ‘এদিন জেলায় মোট ৪ জনের করোনা আক্রান্তের হদিস মিলেছে। তাদের মধ্যে দু’জনকে কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪৯, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৯৫ জন, অ্যাক্টিভ কেস ৫৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। কোভিড হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ২৫ জন। মিকিমেঘা কোভিড হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ১৮ জন। ইসলামপুর কোভিড হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে ৭ জন।

64