পুলিশের জালে মাওবাদী নেতা : মাথার মূল্য ৮ লক্ষ

ওয়েব ডেস্ক জুলাই ২,২০২০: মাওবাদী নেতা উমেশ সাকিন ওরফে ডেভিভ কে গ্রেফতার করল যৌথ বাহিনী। PLGA-র (পিপল’স লিবারেশন গেরিলা আর্মি) কম্যান্ডার ডেভিডের নাম ছিল ছত্তীসগঢ় পুলিশের মোস্ট ওয়ান্টেড তালিকায়। তার মাথার দাম ধার্য হয়েছিল ৮ লক্ষ টাকা। ছত্তীসগঢ় পুলিশ সূত্রে খবর, পিএলজিএ’র প্ল্যাটুন কম্যান্ডার ডেভিডের কর্মপরিধি ছিল মহারাষ্ট্র-মধ্যপ্রদেশ-ছত্তীসগঢ় জুড়ে। জানা গিয়েছে, ইন্দো-তিব্বত সীমান্ত পুলিশ( ITBP) এবং ছত্তীসগঢ়ের রাজনন্দগাঁও জেলা পুলিশের যৌথ বাহিনীর সঙ্গে ব্যাপক এনকাউন্টারের পর ধরা পড়ে যায় এই মাওবাদী প্ল্যাটুন কম্যান্ডার।

পুলিশ সূত্রে খবর, ছত্তীসগঢ়ের রাজধানী রায়পুর থেকে ৭২ কিলোমিটার দূরে কাতেঙ্গা বনাঞ্চলে মঙ্গলবার রাতে আইটিবিপি’র ৩৮ নম্বর ব্যাটেলিয়ন ও লোকাল পুলিশের যৌথ বাহিনীর সঙ্গে মাওবাদীদের ব্যাপক গুলির লড়াই হয়। ঘন জঙ্গলের গভীরে চলে যায় ওই দলটি। রাতেই গোটা জঙ্গল চারপাশ থেকে ঘিরে ফেলা হয়। বুধবার সকালে জঙ্গলে তল্লাশি অভিযান শুরু হলে, আহত অবস্থায় ধরা পড়ে যায় ডেভিড। স্থানীয় খোবা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বন্দুকযুদ্ধের সময় গুলিতে জখম হওয়ায় মাওবাদী কম্যান্ডারকে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বস্তার রেঞ্জের ইনস্পেক্টর জেনারেল অফ পুলিশ সুন্দররাজ পি জানান, মোডাকপল থানা এলাকার পেডাকবলি গ্রামের অদূরেই এক জঙ্গল থেকে সম্প্রতি সুমিত্রা চেপা নামে বছর বত্রিশের ওই মহিলা মাওবাদী ক্যাডারকে নিরাপত্তাকর্মীরা আটক করেছেন।
বস্তারের পুলিশকর্তা জানান, বিগত ১০ বছর ধরে মাওবাদী সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত চেপা। মাওবাদীদের পিএলজিএ ১ নম্বর ব্যাটেলিয়নের সক্রিয় সদস্য সে।
জেরায় ওই মাওবাদী (Maoist) ক্যাডার জানায়, জ্বর, সর্দি-কাশি হওয়ায়, সংগঠনের সকলের ধারণা হয়, তার মধ্যে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছে। সংগঠনের মধ্যে সংক্রমণ ঠেকাতে তাকে রাতারাতি শিবির ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

483